কফি-কাজুবাদামের চারা বিতরণ কৃষিমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ১০:০৭ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার বেরিবাইদ ইউনিয়নের মাগন্তীনগরে প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে কফির চারা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) আয়োজনে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বেরিবাইদ ইউনিয়নের মাগন্তীনগর গ্রামে তিনি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, দেশের পাহাড়ি অঞ্চল, বরেন্দ্র ও মধুপুর ভাওয়াল অঞ্চলের অনেক জায়গায় কাজুবাদাম ও কফি চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে কাজ করছি আমরা।

তিনি বলেন, সারাদেশের যেসব অঞ্চলে কাজুবাদাম এবং কফির চাষাবাদের সম্ভাবনা রয়েছে, তা চাষের আওতায় আনতে ‘কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ’ শীর্ষক ২১১ কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হয়েছে।

কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের উদ্যোগে এ অঞ্চলে ৫ জন কৃষকের ৫০ শতাংশ জমিতে কফি ও কাজুবাদামের চারা রোপণ করা হচ্ছে।

কৃষিমন্ত্রী একজন কৃষকের জমিতে রোবাস্টা ও অ্যারাবিকা জাতের একটি করে কফির চারা রোপণ করে একার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিনা) মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, বারির পরিচালক (পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন) ড. রিনা রানী সাহা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর টাঙ্গাইলের উপ-পরিচালক আহসানুল বাশার, কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের (বারি অঙ্গ) প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আলতাফ হোসেন প্রমুখ।

এছাড়া কৃষিমন্ত্রী ওষুধি গুণসম্পন্ন গাছের চাষ সম্প্রসারণ কর্মসূচির আওতায় চারা বিতরণের মাধ্যমে স্থাপিত এলোভেরার বাগান পরিদর্শন করেন।

এনএইচ/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]