বেরোবিতে রাবি ছাত্রলীগের ২ নেতা আটক

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০৩:৪৪ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৪:০১ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতিতে সম্পৃক্ততার সন্দেহে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।

রোববার বিকেল ৩টায় বেরোবির প্রধান ফটকের সামনে থেকে তাদেরকে আটক করা হয়েছে বলে জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন বেরোবির সহকারী প্রক্টর ড. শফিক আশরাফ।

আটকরা হলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সমাজকর্ম বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান সজল, ছাত্রলীগ কর্মী ও লোকপ্রশাসন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মোস্তফা বিন ঈসমাইল। তারা দুজনই রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর অনুসারী।

বেরোবির সহকারী প্রক্টর ড. শফিক আশরাফ জানান, আটকরা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের বিষয়ে তদবির করার জন্য এসেছিলেন। তাদের গতিবিধি ও আচরণ সন্দেহজনক মনে হওয়ায় পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বেরোবি ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষার সাক্ষাৎকার চলাকালে প্রক্সি পরীক্ষার দায়ে বিভিন্ন ইউনিটের ছয় শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করা দেখে বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির কর্মরত পুলিশ ওই দুইজনকে আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেহেদি হাসান সজল রাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও অন্যজন মোস্তফা বিন ইসমাইল রাবি ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর অনুসারী বলে পরিচয় দেন।

বেরোবির পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহিব্বুল ইসলাম মুন জানান, তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জালিয়াতির প্রমাণ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু জাগো নিউজকে বলেন, আটকের বিষয়টি কিছুক্ষণ আগে শুনলাম। কিন্তু ওদের সঙ্গে আমি এখনও যোগাযোগ করতে পারিনি।

রাশেদ রিন্টু/এমএএস/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :