চবি বিএনসিসি নৌ-শাখার রজতজয়ন্তী ১০ অক্টোবর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩৮ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রতিষ্ঠার ২৫ বছর পূর্তিতে বর্ণাঢ্য রজতজয়ন্তী উৎসবের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি) নৌ-শাখার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্লাটুন ইউনিট। ১০ অক্টোবর দিনব্যাপী এ উৎসব অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি থাকবেন বিএনসিসির মহাপরিচালক। এছাড়া বিএনসিসি (নৌ-শাখা) এর চট্টগ্রাম ফ্লোটিলার অধিনায়কসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এছাড়া বিএনসিসি (নৌ-শাখার) চবি প্লাটুন ইউনিটের প্রাক্তন ও বর্তমান ক্যাডেটরা উপস্থিত থাকবেন।

বিএনসিসি (নৌ-শাখা) চবি প্লাটুন ইউনিটের প্রফেসর আন্ডার অফিসার (পিইউও) ও চবি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. তৌহিদ হোসেন চৌধুরী এই মিলনমেলার সভাপতিত্ব করবেন। চবি (বিএনসিসি-নৌ শাখা) এর কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধান ও পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হবে এই উৎসব। চবি (বিএনসিসি-নৌ)-এর প্রাক্তন ক্যাডেটদের সংগঠন ‘এ্যাংকর সিইউ’ এই মিলনমেলার পৃষ্ঠপোষকতা করছে।

পিইউও ড. তৌহিদ হোসেন চৌধুরী বলেন, ১৯৯৩ সালে যাত্রা শুরু করে বিএনসিসি (নৌ-শাখা) চবি প্লাটুন ২৫ বছর পূর্ণ করতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজন শুধু মিলনমেলায়ই নয়, নতুন ও ভবিষ্যৎ ক্যাডেটদের জন্য প্রেরণা ও চলার পথের পাথেয় হয়ে থাকবে।

প্রাক্তন ক্যাডেটদের সংগঠন ‘এ্যাংকর সিইউ’-এর সভাপতি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীন বলেন, এমন উপলক্ষ সবসময় আসে না। নবীন-প্রবীণের এমন মিলনমেলার মাধ্যমে বিএনসিসির কার্যকলাপ অন্যান্যদেরও ছুঁয়ে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। আমাদের অভিজ্ঞতা যেন নতুনদের জন্য শিক্ষণীয় হয় সেজন্য এমন আয়োজন হওয়া উচিত।

‘এ্যাংকর সিইউ’-এর সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, বর্ণিল শোভাযাত্রা দিয়ে শুরু হবে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালা। এছাড়া আরো থাকছে- আলোচনা সভা, কথামালা, স্মৃতিচারণসহ নানা আয়োজন।

প্রীতিভোজ এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মতো আকর্ষণীয় আয়োজন তো থাকছেই। রজতজয়ন্তী উৎসব উপলক্ষে একটি সাময়িকী বের করবে এই প্রতিষ্ঠান। ইতোমধ্যে রজতজয়ন্তী উৎসবের নিবন্ধন শুরু হয়েছে। নিবন্ধন চলবে সেপ্টেম্বর ৮ থেকে ২০ পর্যন্ত।

বর্তমান ক্যাডেটদের নিবন্ধনের জন্য বিএনসিসি (নৌ-শাখা) চবি প্লাটুন ইউনিট অফিসে যোগাযোগ করার জন্য বলা হয়েছে। প্রাক্তন ক্যাডেটদের নিবন্ধনের জন্য ‘এ্যাংকর সিইউ’-এর সভাপতি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার চাকমা’র সঙ্গে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে।

দেশে সশস্ত্র বাহিনীর সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করে বিএনসিসি। তাই সেনা, নৌ ও বিমান তিনটি ভিন্ন উইংয়ের মাধ্যমে ক্যাডেটদের কার্যক্রম পরিচালিত হয়। বর্তমানে সেনা উইংয়ের অধীনে পাঁচটি রেজিমেন্ট, নৌ-উইংয়ের অধীনে তিনটি ফ্লোটিলা এবং এয়ার উইংয়ের অধীনে তিনটি এয়ার স্কোয়াড্রন কাজ করছে সারা দেশে। দেশের ৫২৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্লাটুন আছে মোট ৬৫১টি। চবি বিএনসিসি (নৌ-শাখা) যাত্রা শুরু করে ১৯৯৩ সালে।

এআর/এমআরএম/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :