নতুন কর্মসূচি দিয়ে সড়ক ছাড়লেন ৭ কলেজের শিক্ষার্থীরা

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩১ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের ৫ দফা দাবিতে আন্দোলন ও অবস্থান কর্মসূচি আজকের মতো স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে আগামীকাল বেলা ১১টায় আবারও রাজধানীর নীলক্ষেতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় নীলক্ষেতে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষার্থী এ সিদ্ধান্ত জানান। আন্দোলন স্থগিত ঘোষণার পর ওই এলাকায় যানজট চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে ঢাকা কলেজের বাংলা বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী আবু বকর জানান, আমাদের ৫ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাব। তবে আজকের মতো আন্দোলন স্থগিত। আগামীকাল এইচএসসি পরীক্ষা থাকায় সকাল ১০টার পরিবর্তে ১১টায় নীলক্ষেতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করব।

এর আগে সকাল ১০টায় ৫ দফা দাবি নিয়ে ঢাকা কলেজের সামনে মানববন্ধনে অংশ নেয় ঢাবির অধিভুক্ত সাত সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা। পরে মনববন্ধনটি বিক্ষোভ মিছিলে পরিণত হয়। তারা বেলা ১১টায় নীলক্ষেত অবরোধ করে।

তাদের দাবিগুলো হলো-

১. একসঙ্গে পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ত্রুটিমুক্ত ফলাফল প্রকাশসহ একই বর্ষের সব বিভাগের ফলাফল একত্রে প্রকাশ

২. গণহারে অকৃতকার্য হওয়ার কারণ প্রকাশসহ খাতা পুনঃমূল্যায়ন

৩. সাত কলেজ পরিচালনার জন্য স্বতন্ত্র প্রশাসনিক ভবন

৪. প্রতিটি বিভাগে মাসে দু’দিন করে অধিভুক্ত সাত কলেজে মোট ১৪ দিন ঢাবি শিক্ষকদের ক্লাস নেয়া

৫. সেশনজট নিরসনে একাডেমিক ক্যালেন্ডার প্রকাশসহ ক্রাশ প্রোগ্রাম চালু।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের যৌক্তিক দাবিগুলো মেনে নেয়ার কোনো আশ্বাস ঢাবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে না দেয়ায়, আমরা আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে রাজধানীর সাত সরকারি কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়। এর পর থেকেই সেশনজটসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত সাত কলেজের প্রায় আড়াই লাখ শিক্ষার্থী।

এমএসএইচ/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :