আমাদের সময়ের মূল্য কে দেবে?

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ঢাকা কলেজ
প্রকাশিত: ০১:৪৯ পিএম, ০৪ জুলাই ২০১৯

আবারও আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত রাজধানীর সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। কর্মসূচি হিসেবে আগামী ৬ জুলাই সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করবে তারা।

গত ৩০ জুন (রোববার) ঢাকা কলেজের ক্যাফেটেরিয়ায় সাত কলেজের প্রতিনিধি ও শিক্ষার্থীদের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়।

একাধিক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সেশন জট, ফলাফল প্রকাশে দীর্ঘসূত্রিতা, ত্রুটিযুক্ত ফলাফল প্রকাশ, একই বিষয়ে গণহারে ফেল, বিনা নোটিশে নতুন নিয়ম কার্যকর, সিলেবাস বহির্ভূত প্রশ্নপদ্ধতিসহ নানা সংকট নিরসনে আন্দোলনে নামছে তারা।

সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ বারবার সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেয়া হলেও কার্যত সমস্যা সমাধানে কোনো পদক্ষেপই নিচ্ছে না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এদিকে সেশন জটের কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যলয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এক বছর পিঁছিয়ে গেছে অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

মাহামুদুল হাসান নামের ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের অনার্স ৪র্থ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শেষ হলেও এখনো ফল প্রকাশ হয়নি। অন্যদিকে একই সেশনের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে একই সেশনের পরীক্ষাগ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ আরও অনেক আগে শেষ হয়েছে। ফলে আমরা বিসিএস, ব্যাংক নিয়োগ, শিক্ষক নিবন্ধন, প্রাইমারি নিয়োগসহ যে কোনো চাকরির পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছি না।’

ঢাকা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র সুমন আল মামুন বলেন, ‘২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩য় বর্ষের যেখানে ক্লাস চলছে কিছুদিন পরেই ফাইনাল পরীক্ষা হবে। আর আমাদের সাত কলেজে ২য় বর্ষের পরীক্ষা চলছে শেষ হতে আরও এক মাসের বেশি সময় লাগবে। আমাদের জীবনের এ সময়ের মূল্য কে দেবে।

সরকারি বাঙলা কলেজের ২০১৪-১৫ সেশনের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী মো. সোহরাব হুসাইন বলেন, ‘আমাদের বিভাগের ২১৫ শিক্ষার্থীর সবাই একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে ফেল করেছে, পরে ঢাবি কর্তৃপক্ষ ফলাফল ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে নেয়। দুই মাস চলে গেলেও আমরা এখনও সংশোধিত ফল পায়নি।’

গত ২ মে ২০১৯ প্রকাশিত বাঙলা কলেজের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষ ব্যবস্থাপনা বিভাগ ৩য় বর্ষের ফলাফলে দেখা যায় ইন্সুরেন্স অ্যান্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে ২১৫ পরীক্ষার্থীর গড়ে সবাই এই একই বিষয়ে ফেল করে। পরে সমালোচনার মুখে ওয়েবসাইট থেকে ফলাফল সরিয়ে নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও শিক্ষার্থীদের আরও অভিযোগ, অনার্স ২০১৭-১৮ সেশনের ১ম বর্ষের পরীক্ষার ৫ মাস সময় অতিবাহিত হলেও এখনও ফল প্রকাশিত হয় নি।

অনার্স ২০১৪-১৫ সেশনের ৩য় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা গত ৫ ডিসেম্বর ২০১৮ শেষ হলেও গত কয়েক মাসে কিস্তিতে ফল প্রকাশ হয়েছে এখনও ১০টি বিভাগের ফল অপ্রকাশিত রয়েছে। একই সঙ্গে সব বিভাগের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে কিস্তিতে ফল প্রকাশকে সাত কলেজের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সমন্বয়হীনতাকেই দায়ী করছে শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর ঢাকা কলেজ, ইডেন কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, মিরপুর বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ- এই সাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) অধিভুক্ত করা হয়।

এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বর্তমানে অধ্যয়নরত আড়াই লক্ষাধিক শিক্ষার্থী। একই বছর পরীক্ষার রুটিনের দাবিতে আন্দোলনে গিয়ে দুই চোখ হারান তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমান।

এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]