তৃতীয়বারের মতো ইবির প্রক্টর মাহবুবর রহমান

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ১০:০৯ এএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তৃতীয়বারের মতো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রক্টর হলেন অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান। রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উপাচার্য বলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. আনিছুর রহমান অন্তত ১৫ দিন আগে পদত্যাগপত্র জমা দিলেও এতদিন তা গ্রহণ করা হয়নি। তাই পরিস্থিতি বিবেচনায় এক জরুরি সভায় সাবেক প্রক্টরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

জানা যায়, অধ্যাপক মাহবুবর রহমান এর আগেও দুই দফায় ৩ বছর ৯ মাস প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি এর আগে প্রথম দফায় ২০১৪ সালের ১০ এপ্রিল থেকে ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। দ্বিতীয় দফায় ২০১৫ সালের ১৭ অক্টোবর থেকে ২০১৮ সালের ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। পরে অধ্যাপক ড. ইব্রাহিম আব্দুল্লাহ সিজারকে প্রক্টরের দায়িত্ব দেয়া হলে তিনি যোগদান করেননি। ফলে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় সহযোগী অধ্যাপক ড. আনিছুর রহমানকে।

তবে গত ২৫ আগস্ট মধ্যরাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে প্রক্টরের নিরব ভূমিকায় পরের দিন ২৬ আগস্ট প্রক্টরের পদত্যাগ দাবি করে ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব। এরই প্রেক্ষিতে রোববার জরুরি সভা করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী।

সভায় উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. সেলিম তোহা, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণ, সদ্য সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর সহযোগী অধ্যাপক ড. আনিছুর রহমান।

অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য ও প্রগতিশীল শিক্ষকদের সংগঠন শাপলা ফোরামের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি শিক্ষক সমিতিরও কার্যনির্বাহী কমিটর সদস্য। এর আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যাক্ষ ও ছাত্র উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, আমি শারীরিকভাবে খুবই অসুস্থ। আবারও প্রক্টরের দায়িত্ব দেয়া বলে হয়েছে শুনেছি। কিন্তু আমি যোগদান করব কি-না এখনি বলতে পারছি না।

ফেরদাউসুর রহমান সোহাগ/আরএআর/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]