সিনিয়রকে ‘তুমি’ বলায় প্রক্টরের সামনে মারামারি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক নোবিপ্রবি
প্রকাশিত: ০১:২২ এএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২০

এক ব্যাচ সিনিয়রকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ‘তুমি’ বলে সম্বোধন করায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) সিনিয়র-জুনিয়রের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে নোবিপ্রবির প্রশান্তি পার্ক ক্যান্টিনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩তম এবং ১৪তম ব্যাচের দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে এ মারামারির ঘটনা ঘটে।

শিক্ষার্থীরা হলেন ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সোহেল রানা (২০১৭-১৮) ও বাংলা বিভাগের মো. জমির আলী (২০১৮-১৯)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মারামারির সময় তারা একে-অপরকে লাথি মারতে থাকেন। তাদের উভয়কে মারামারিরত অবস্থায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর ও বাংলা বিভাগের প্রভাষক সাহানা রহমান। ঘটনার সময় অন্য দুই শিক্ষক এসে থামাতে চেষ্টা করলেও থামেননি তারা।

পরে ঘটনাস্থলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র কয়েকজন শিক্ষক এসে তাদের প্রক্টর অফিসে নিয়ে যান। সেখানে তাদের বক্তব্য শোনার পর ব্যক্তিগত পরিচয়সহ ঘটনার সংশ্লিষ্ট লিখিত বক্তব্য নিয়ে ছেড়ে দেয় প্রক্টরিয়াল টিম।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী নতুন বর্ষের (১৫তম ব্যাচ) এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে ফেসবুকে সিনিয়রকে তুমি বলে সম্বোধন করায় এ ঘটনার সূত্রপাত হয়। পরবর্তীতে সিনিয়র ওই শিক্ষার্থীর এক বন্ধু ফোনে তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন। বুধবার প্রশান্তি পার্ক ক্যান্টিনে ডেকে চোখ তুলে ফেলারও হুমকি দেয় তাকে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সহকারী প্রক্টর সাহানা রহমান বলেন, ঘটনায় সম্পৃক্তদের নামসহ অভিযোগ সংশ্লিষ্ট বিভাগে পাঠানো হয়েছে। লিখিত বক্তব্য নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে। প্রক্টরিয়াল টিম ঘটনা বিশ্লেষণ করে তাদের যথাযোগ্য শাস্তি নিশ্চিত করবে।

এএম/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]