শিশুকে গাছে বেঁধে হাতে সুই ঢুকিয়ে নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা
প্রকাশিত: ০৩:৪৭ পিএম, ০৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৪:২৭ এএম, ০৬ নভেম্বর ২০১৭

চুরির অপবাদ দিয়ে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় নয়ন মিয়া (১২) নামের এক শিশুর হাতে সুই ঢুকিয়ে ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় সর্বানন্দ ইউনিয়নের রামভদ্র কদমতলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। রোববার সন্ধ্যার দিকে ঘটনাটি স্থানীয় সাংবাদিকদের নজরে আসে।

পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নয়ন মিয়া ওই গ্রামের মৃত আব্দুল আউয়ালের ছেলে। এ ঘটনায় নয়ন মিয়ার মা মা নুরজাহান বেগম বাদী হয়ে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, তিন বছর আগে অসুস্থতাজনিত কারণে বাবা মারা গেলে নয়ন মাসে আড়াই হাজার টাকা বেতনে ছয় মাস আগে প্রতিবেশী কবির হোসেনের মুরগির ফার্মে কাজ শুরু করে।

শনিবার সকালে কবির হোসেনের বাড়ি থেকে ১০ হাজার টাকা চুরি হলে কবির হোসেন সন্দেহ করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে নয়ন বিষয়টি অস্বীকার করে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ধ্যার দিকে কবির হোসেনসহ আরও কয়েকজন মিলে নয়নকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করে ও একটি আঙুলে সুই ঢুকিয়ে নির্যাতন করে। পরে নুরজাহান বেগম নয়নকে বাড়িতে নিয়ে যান। পুলিশকে জানালে নয়নকে উদ্ধার করে রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়া হয়।

খবর পেয়ে রোববার রাতে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম গোলাম কিবরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশুটিকে দেখতে যান ও আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. ইয়াকুব আলী মোড়ল বলেন, শিশুটির শরীরে ও হাতের আঙুলে ক্ষতের চিহৃ রয়েছে।

সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান জাগো নিউজকে বলেন, শিশু নয়ন মিয়াকে নির্যাতনের ঘটনায় নুরজাহান বেগম বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

রওশন আলম পাপুল/এএম/আরআইপি