ঘুষ নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিল পুলিশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশিত: ০৯:২২ এএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

নওগাঁর মহাদেবপুরে পুলিশের বিরুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ঘুষ নিয়ে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত অপর দুই মাদক ব্যবসায়ীকে মামলা দিয়ে রোববার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, মোহনপুর গ্রামের ফিরোজ হোসেনকে ঘুষ নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। একই ঘটনায় বদলগাছী উপজেলার ভরাট্ট গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে শাহিন হোসেন (২৬) ও প্রধানকুন্ডি গ্রামের ইয়াসিন মোল্লার ছেলে সুজন মোল্লাকে (৩৫) কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, শনিবার সকাল ১০টার দিকে মহাদেবপুর উপজেলার হাতুড় ইউনিয়নের মহিষবাথান গ্রামের রাস্তায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অবস্থান করছিলেন থানার এএসআই আব্দুর রউফ। একটি মোটরসাইকেলে তিনজন ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তাদের আটক করে।

এ সময় তাদের কাছ থেকে দেড় কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। তাদেরকে আটক করে নিয়ে এসে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়ার জন্য দফায় দফায় বৈঠক হয়। এক লাখ টাকার বিনিময়ে সবাকেই ছেড়ে দেয়া হবে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। অবশেষে ২২ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে মোটরসাইকেলসহ ফিরোজ হোসেনকে ছেড়ে দেয়া হয়। কিন্তু শাহিন হোসেন এবং সুজন মোল্লার বিরুদ্ধে মাদকের মামলা দেয়া হয়।

মোটরসাইকেলের মালিক সেকেন্দার আলী বলেন, ওই তিনজন বেড়ানোর কথা বলে আমার মোটরসাইকেল নিয়ে যায়। পরে শুনি গাঁজাসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। তাদেরকে ছেড়ে দেয়ার শর্তে পুলিশের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকার কথা বলে। ওপরের চাপ আছে বলে অবশেষে ২২ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে মোটরসাইকেলসহ ফিরোজ হোসেনকে ছেড়ে দেয়া হয়।

তবে এ ব্যাপারে এএসআই আব্দুর রউফ বলেন, ঘুষ নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। যদি পুলিশের নাম করে কেউ টাকা নিয়ে থাকে তা আমার বিষয় না। তবে মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততা না থাকায় ফিরোজ হোসেনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু মাদকসহ আটক মোটরসাইকেলের বিষয়ে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

আব্বাস আলী/এফএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :