নিজ ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী-ছেলে-মেয়ের ঝুলন্ত মরদেহ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার
প্রকাশিত: ০৬:৩৭ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের ভোলাকান্দি গ্রামে একই পরিবারের তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিজ ঘর থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- কাতার প্রবাসী আকামত আলীর স্ত্রী মাজেদা বেগম (২৫), মেয়ে লাবনী বেগম (৫) ও ছেলে ফারুক আহমদ (৩)। নিহত মাজেদার বাবার বাড়ি কুলাউড়া উপজেলার সাদিপুর গ্রামে।

পুলিশ ও প্রতিবেশী সূত্রে জানা গেছে, কাতার প্রবাসী আকামত আলীর স্ত্রী প্রতিদিন নিজ বাড়ির পাশেই আরেকটি ঘর নির্মাণে মিস্ত্রিদের সাহায্য-সহযোগিতা করছিলেন। একইভাবে মঙ্গলবারও মিস্ত্রিদের সাহায্য করছিলেন। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দিবাংশু নামে মিস্ত্রি মাজেদার ঘরে সিমেন্টে নিতে গিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ দেখেন। অনেক ডাকাডাকি করে দীর্ঘক্ষণ সাড়া না পেয়ে দরজার ফাঁক দিয়ে মাজেদাসহ মেয়েকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান এবং লোকজনকে জানান।

খবর পেয়ে ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক আহমদ ও আওয়ামী লীগ নেতা মোক্তার আলী পুলিশে খবর দেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মা ও মেয়ের ঝুলন্ত মরদেহ ও মেঝে থেকে শিশুপুত্রের মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক আহমদ জানান, তিনি বিকেল ৫টার দিকে খবর পেয়েই আমি ঘটনাস্থলে যাই। তবে কী কারণে ঘটনাটি ঘটেছে- তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

বড়লেখা থানার এসআই অমিতাভ দাস তালুকদার জানান, মা, মেয়ে ও শিশুপুত্রের মরদেহ মেঝে থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ তিনটি মর্গে পাঠানো হবে।

তবে ঘটনাটি আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা, এ নিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসীর মধ্যে নানা সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

বিএ

আপনার মতামত লিখুন :