প্রাথমিক ও গণশিক্ষাবিষয়ক মন্ত্রী আসবেন তাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ১০:২৫ এএম, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ১০:৩২ এএম, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার খিলদা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শত বছর পূর্তির অনুষ্ঠান সফল করতে চলছে অবৈধ লটারি বিক্রির মহোৎসব। অনুষ্ঠানে আগামী ৩১ ডিসেম্বর প্রধান অতিথি থাকার কথা রয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষাবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান এমপির।

মন্ত্রীর নাম ভাঙিয়ে পুরো উপজেলার ১৭২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লটারি বিক্রি বাধ্যতামূলক করেছে আয়োজকরা। এ কাজে সহযোগিতা করার অভিযোগ উঠেছে কালিহাতী উপজেলা প্রশাসন ও শিক্ষা অফিসের বিরুদ্ধে।

কালিহাতী উপজেলার একাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, কোনো বিদ্যালয়ে একটি আবার কোনো বিদ্যালয়ে ২টি করে লটারির বই দেয়া হয়েছে। প্রতিটি বইয়ে ১০০টি করে কূপন রয়েছে। প্রতিটি লটারির দাম ২০ টাকা করে।

সম্প্রতি উপজেলা শিক্ষা অফিসে শিক্ষকদের নিয়ে সভা করে প্রতিটি বিদ্যালয়ে এ লটারির বই বিতরণ করা হয়। সেই সঙ্গে ছাত্র-ছাত্রীদের লটারি ক্রয়ে বাধ্য করা হচ্ছে।

এদিকে এ লটারি বিক্রি নিয়ে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কতিপয় শিক্ষিকা জানান, আমাদের উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে এ লটারি বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকাকে বিক্রির জন্য দেয়া হয়েছে। অতীতে দেখা গেছে বিদ্যালয়ের খেলাধুলা কিংবা অন্য কোনো অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের চাঁদা ধরলে উপস্থিতির হার অন্য দিনের তুলনায় কমে যায়। তাই এ লটারি বিক্রির বিষয়ে আমি একমত নই।

এ বিষয়ে লটারি বিক্রি কমিটির আহ্বায়ক আবু বকর সিদ্দিকী বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাম্মৎ শাহীনা আক্তার ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শামছুল আলমসহ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অনুমতি নিয়েই উপজেলার সব বিদ্যালয়ে এ লটারি বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ বলেন, আমাকে খিলদা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে জানানো হয়েছে শত বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে আমাদের মন্ত্রী মহোদয় আসবেন। আর ওই অনুষ্ঠান সফল করতে হবে। তবে লটারি বিক্রির বিষয়টি আমার জানা নেই।

এ প্রসঙ্গে কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাম্মৎ শাহীনা আক্তার বলেন, এমপির মাধ্যমে জানতে পেরেছি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ অনুষ্ঠানে থাকবেন। লটারি বিক্রির অনুমতি উপজেলা প্রশাসন থেকে দেয়া হয়নি।

আরিফ উর রহমান টগর/এমএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :