কুশিয়ারার তীরে ঐতিহ্যবাহী মাছের মেলা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার
প্রকাশিত: ১২:৩৮ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৮

মৌলভীবাজারের শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে চলছে প্রায় ২০০ বছরের ঐতিহ্যবাহী মাছের মেলা। ৩ দিনব্যাপী এ মেলা বুধবার রাত থেকে শুরু হয়েছে। শেষ হবে আজ শনিবার।

পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে প্রায় দুইশ বছর আগে থেকে মাছের মেলাটি শুরু হলেও এটি এখন সার্বজনীন উৎসবে রূপ নিয়েছে। সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ এই তিন জেলার মিলনস্থল শেরপুর এলাকায় বসে মাছের মেলা। বিভিন্ন স্থান থেকে ক্রেতারা দেশীয় প্রজাতির টাটকা মাছ কিনতে আসেন এ মেলায়।

এবারের মেলায় হাকালুকি, টাঙ্গুয়া, হাইল হাওর ছাড়াও সুরমা ও কুশিয়ারা এবং মেঘনার ছোটো বড় নানা জাতের অসংখ্য মাছ এসেছে। এরমধ্যে রয়েছে ৬০ থেকে ৯০ কেজি ওজনের বাঘা মাছ। এছাড়াও রয়েছে- আইঢ়, চিতল, রুই, কাতল, মৃগেল, কালবাউস, বোয়ালসহ নানা জাতের মাছ।

মৌলভীবাজার জেলা শহর থেকে প্রায় ২২ কিলোমিটার দূরে শেরপুরে কুশিয়ারা নদীর তীরে ঐতিহ্যবাহী এ মাছের মেলা বসে পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে।

মাছ ব্যবসায়ী কবির মিয়া জানান, হাকালুকি হাওড় থেকে মাছ নিয়ে মেলায় এসেছেন তিনি। মেলার ১৫-২০ দিন আগ থেকেই মাছ সংগ্রহের কাজ শুরু করেন। মেলার জন্য একটি বছর অপেক্ষা করেন মাছ ব্যবসায়ীরা।

Fish-Fare

এটি যদিও মাছের মেলা নামে পরিচিত তথাপি মাছ ছাড়াও বিভিন্ন পসরার কয়েক হাজার দোকান বসে এখানে। মেলায় মাছ ছাড়াও ফার্নিচার, গৃহস্থলী সামগ্রী, খেলনা ও নানা জাতের দেশীয় খাবারের দোকানসহ গ্রামীণ ঐতিহ্যের দোকানও স্থান পায়। এছাড়া শিশুসহ সব শ্রেণির মানুষকে মাতিয়ে তোলার জন্য রয়েছে বায়োস্কোপ ও চরকি খেলা।

শেরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অরবিন্দু পোদ্দার বাচ্চু জানান, মেলা ঘিরে সব ধরনের অসাধু কার্যকলাপ বন্ধ করতে এবং মেলাকে আনন্দময় করতে প্রশাসনের সহযোগিতায় এবছর সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এফএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :