এমপিপুত্রের মৃত্যু, শরীরে কোনো দাগ নেই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:০৮ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য মুস্তফা লুৎফুল্লাহ’র ছেলে অনীক আজিজ স্বাক্ষর আত্মহত্যা করেছেন বলে ময়নাতদন্তে লক্ষণ পাওয়া গেছে।

রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তার মরদেহ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে নিয়ে আসা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে দুপুর ১টায় তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় সাতক্ষীরায়।

এর আগে শনিবার রাতের যে কোনো এক সময়ে ঘরের মধ্যে থাকা ইন্টারনেটের তার গলায় জড়িয়ে সিলিং ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যা করেন অনীক আজিজ।

ময়নাতদন্ত শেষে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের অধ্যাপক এ এম সেলিম রেজা সাংবাদিকদের বলেন, ‘সুরতহাল প্রতিবেদনে আত্মহত্যার যে সন্দেহের কথা বলা হয়েছে, ময়নাতদন্তেও আমরা সে রকম লক্ষণ পেয়েছি। তার শরীরে কোনো দাগ নেই।’

সংসদ সদস্যদের জন্য বরাদ্দকৃত ৫নং ন্যাম ভবনের ৫০৪ নম্বর কক্ষে থাকতেন অনিক আজিজ স্বাক্ষর। আর তার পাশের রুমে থাকতেন ছোট বোন সৃষ্টি।

রোববার সকালে সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়ার জন্য ঢাকাতে যান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ। এরপর অনেক ডাকাডাকির পরও ঘরের দরজা না খোলায় দরজা ভেঙে ছেলের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান বাবা। সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ’র একান্ত সচিব জাহাঙ্গির হোসেন জাগো নিউজকে ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।

ময়নাতদন্ত শেষে ঢাকা থেকে এমপিপুত্রের মরদেহ সাতক্ষীরাস্থ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে। নিহত অনীকের চাচা আলী আহম্মদ মোর্তুজা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অনিক আজিজের মরদেহটি সাতক্ষীরার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে। সন্ধ্যার আগেই সাতক্ষীরার গণমুখী মাঠে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে।

এদিকে, এমপিপুত্রের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা সাতক্ষীরায়। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের মানুষরা ছুটে যাচ্ছেন এমপির বাড়িতে। গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। শোক প্রকাশ করেছেন ডিএমপির উপ-কমিশনার অর্থ শ্যামল কুমার মুখার্জী।

ডিএমপির উপ-কমিশনার অর্থ শ্যামল কুমার মুখার্জী বলেন, শোক প্রকাশের ভাষা নেই। কেন এমনটি হলো বিষয়টি এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। তবে পারিবারিক কিংবা প্রেমঘটিত কারণে এমনটি হয়েছে কি-না তার রহস্য উন্মোচন হবে।

আকরামুল ইসলাম/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :