বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:৩০ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সিলেট সফরে যাওয়ার পথে শুভেচ্ছা জানাতে নারায়ণগঞ্জে বিএনপি ও সহযোগী অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা মহাসড়কের পাশে জড়ো হয়।

বিএনপি নেত্রীর গাড়িবহর নারায়ণগঞ্জে পৌঁছানোর আগে বিএনপি নেতাকর্মীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিতে যায় পুলিশ। এ সময় ব্যানার ফেস্টুন ছিনিয়ে নিতে গেলে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে।

একপর্যায়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। পুলিশের লাঠিচার্জে বিএনপির ২৫/৩০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ আড়াইহাজার ও সাইনবোর্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

police

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সোমবার সকালে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সিলেট সফরে যাওয়ার পথে নারায়ণগঞ্জের বিএনপির নেতাকর্মীরা স্বাগত জানাতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রূপগঞ্জের গাউছিয়া-ভুলতা ও আড়াইহাজার উপজেলায় সড়কের পাশে অবস্থান নেয়।

মহাসড়কের পাশে আড়াইহাজার উপজেলায় কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদসহ শতাধিক নেতাকর্মী অবস্থান নেয়ায় পুলিশ ধাওয়া করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশের লাঠিচার্জে মহিলা দলের নেত্রী পারভীন আক্তারসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়। এ সময় থানা পুলিশের ওসি ইসমাইল হোসেন বিএনপি নেতাকর্মীদের গালি দিয়ে নজরুল ইসলাম আজাদসহ দু'জনকে আটক করে।

এদিকে, রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া এলাকায় সকাল থেকে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া দিপুসহ অন্যান্য নেতাদের নেতৃত্বে শতাধিক কর্মী অবস্থান নেয়। পুলিশ নেতাকর্মীদের মহাসড়ক থেকে সরিয়ে যেতে বলে।

police

এ সময় ব্যানার ফেস্টুন ছিনিয়ে নিতে গেলে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পুলিশের লাঠিচার্জে ৮/১০ জন নেতাকর্মী আহত হয়। এছাড়া সানারপাড় এলাকায় পুলিশ ধাওয়া করে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন শিকদার জানান, খালেদা জিয়ার সিলেট সফরে যাওয়ার সময় স্বাগত জানাতে জেলার বিভিন্ন সড়কে নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। তখন পুলিশ নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এ সময় নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) পরিদর্শক সরাফত উল্লাহ জানান, বিএনপির নেতাকর্মীরা মহাসড়কে নাশকতা করতে পারে- এমন আশঙ্কায় তাদেরকে রাস্তা থেকে সরে যেতে বলা হয়। এ সময় তারা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। সেই সঙ্গে পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করে পুলিশের কাজে বাধা দেয় বিএনপি নেতাকর্মীরা।

মো. শাহাদাত হোসেন/এএম/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :