রায় শুনে কাঠগড়ায় অজ্ঞান আসামি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শেরপুর
প্রকাশিত: ০৩:৫৭ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

শেরপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যার দায়ে এক যুবকের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত মো. আশরাফ আলী (৩২) নালিতাবাড়ী উপজেলার মোয়াকুড়া গ্রামের কুব্বাদ আলীর ছেলে।

বুধবার বিকেলে দণ্ডপ্রাপ্ত আশরাফ আলীর উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা দায়রা জজ মো. মোসলেহ উদ্দিন।

মৃত্যুদণ্ডের রায় শুনে দণ্ডপ্রাপ্ত আশরাফ আলী আদালতের কাঠগড়ায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। পরে মাথায় পানি ঢেলে তাকে সুস্থ করার পর কারাগারে নেয়া হয়।

আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট ইমাম হোসেন ঠাণ্ডু রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ২০১১ সালের ৭ মে দেড় বছরের ছেলেকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন গৃহবধূ হাজেরা খাতুন।

স্বামীর অনুপস্থিতিতে ওই রাতে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে ঘুমন্ত হাজেরা খাতুনকে ধর্ষণের চেষ্টা করে প্রতিবেশী আশরাফ আলী। ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে ছুরিকাঘাতের ফলে গৃহবধূ হাজেরার মৃত্যু হয়।

মৃত্যুর আগে গৃহবধূ আশরাফ আলীর নাম বলে গেলে রাতেই বাড়ির পাশে একটি ভটভটিতে পালিয়ে থাকা আশরাফকে স্থানীয় লোকজন আটক করে। পরে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে খুনের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় আশরাফ।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা কাশেম আলী বাদী হয়ে নালিতাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা করলে মামলাটি ডিবিতে স্থানান্তর হয়। ডিবির এসআই মোস্তাফিজুর রহমান ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট আদালতে চার্জশিট দেন। ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে বুধবার আশরাফের মৃত্যুদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ঘোষণা করে রায় দেন আদালত।

হাকিম বাবুল/এএম/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :