লঞ্চযাত্রীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি, আটক ৪

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি মুন্সীগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৮

বরিশাল থেকে ঢাকাগামী ফারহান-৭ নামের লঞ্চ থেকে এক যাত্রীকে অপহরণ করে পঞ্চাশ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা।

এ ঘটনায় বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মুন্সীগঞ্জ সদরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকা থেকে কৌশলে ৪ অপহরণকারীকে আটক করে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গেছে, বুধবার সকালে ঢাকাগামী ফারহান-৭ লঞ্চ থেকে বরিশাল জেলার বানাড়ীপাড়া এলাকার গোপাল চন্দ্র মণ্ডলকে (৪০) অপহরণ করে।

পরবর্তীতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মুন্সীগঞ্জ সদরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকা থেকে আব্দুল রব (৩৫), আমির হোসেন (৪০), সুমন মিয়া (২২) ও মঞ্জিল (৩৫) নামে ৪ অপহরণকারীকে আটক করে এবং অপহৃত গোপাল চন্দ্র মণ্ডলকে উদ্ধার করে।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশের এসআই ইলিয়াস জানান, ভোরে অপহরণকারীরা লঞ্চ থেকে গোপাল মণ্ডলকে নামিয়ে হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার মঞ্জিলের রান্না ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখে এবং পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবি করে গোপাল মণ্ডলের বাড়িতে ফোন দেয়।

পরবর্তীতে গোপাল মণ্ডলের পরিবার ঢাকা পুলিশ হেড কোয়ার্টারে যোগাযোগ করে এবং পুলিশ হেড কোয়ার্টার অপহরণকারীদের স্থান শনাক্ত করে ত্রিপলী নাইনে মুন্সীগঞ্জ সদর থানাকে অবগত করে।

তিনি আরও জানান, এএসআই তানিয়া অপহৃত ব্যক্তির বোন সেজে অপহরণকারীদের ফোন দেয়। অপহরণকারীরা তানিয়াকে হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার মুন্সীগঞ্জ রেস্তোরাঁয় আসতে বলে। সেখানে গিয়ে আমাদের টিম তাদের ঘেরাও করে ফেলে এবং তিন অপহরণকারীকে আটক করে।

পরে তাদের তথ্যের ভিত্তিতে আরও একজনকে আটক করা হয় এবং অপহরণকারী মঞ্জিলের বাড়ির রান্না ঘর থেকে বরিশালের বানাড়ীপাড়া এলাকার কালু চন্দ্র মণ্ডলের ছেলে গোপাল চন্দ্র মণ্ডলকে উদ্ধার করা হয়।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসাইন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লঞ্চযাত্রী অপহরণের বিষয়ে বৃহস্পতিবার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং রয়েছে। পুলিশ সুপার বিস্তারিত জানাবেন।

ভবতোষ চৌধুরী নুপুর/এএম/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :