আঙুল কাটলেন যুবলীগ নেতা : চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন এসপি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সুনামগঞ্জ
প্রকাশিত: ০১:৩৪ পিএম, ১৯ মার্চ ২০১৮

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের প্রকল্প কমিটির সভাপতি (পিআইসি) ও যুবলীগ নেতা অদুদের বর্বরতার শিকার শিশু ইয়াহিনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খাঁন।

রোববার রাত ৮টার দিকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ওই শিশুর চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিতে ও তাকে দেখতে হাসপাতালে যান পুলিশ সুপার। পরে বেডে শয্যাশায়ী শিশু ইয়াহিনের মুখে শনিবার তার উপর চালানো নির্যাতনের ঘটনা শোনেন তিনি।

এ সময় পুলিশ সুপার শিশু ইয়াহিন সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যায়ভার বহন ও আইনি সহায়তার ঘোষণা দিয়ে তার মা দিলরাজ বেগমের হাতে প্রাথমিক অনুদান হিসেবে নগদ ২০ হাজার টাকা, নতুন জামা কাপড় ও ফলের ব্যাগ তুলে দেন।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় অন্য সবার মতো পুলিশ প্রশাসনের লোকজনও মর্মাহত। অদুদ যে লীগই করুক আর যতবড় প্রভাবশালীই হোক না কেন তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে ইয়াহিন গরুর ঘাস কাটার জন্য মহালিয়া হাওর পাড়ে ময়নাখালি বাঁধের উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় পা পিছলে বাঁধের নিচে পড়ে যায়। এ সময় নির্মাণাধীন বাঁধের ড্রেসিং করা কাজে ব্যাঘাত ঘটে। কাজে ব্যাঘাত ঘটায় অদুদ মিয়া ইয়াহিনের হাতে থাকা কাঁচি কেড়ে নিয়ে হাতের ৪টি আঙুল কেটে দেয়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে লোকজন। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]