প্রতীক নয় ইমেজই প্রাধান্য পাচ্ছে গাজীপুরে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ১২:৪০ পিএম, ২৮ মার্চ ২০১৮

প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে গাজীপুর সদর উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সব আয়োজন চূড়ান্ত। দলীয় প্রতীকের এ নির্বাচনে ভোটগ্রহণের তারিখ ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে জয়-পরাজয়ের হিসাবও পাল্টে যাচ্ছে। দল, প্রতীক ও আঞ্চলিকতার বিষয়টি শুরুতে প্রভাব বিস্তার করলেও শেষ পর্যায়ে এসে ভোটারদের কাছে ব্যক্তি ইমেজই মূখ্য হয়ে উঠেছে।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, স্থানীয় এ নির্বাচনে দলীয় প্রতীকের সঙ্গে প্রার্থীর ব্যক্তিগত ইমেজকেই বড় করে দেখছেন ভোটাররা। তারা শিক্ষিত, দুর্নীতিমুক্ত, ভালো মানুষকেই বেছে নিতে চান।

এবারের নির্বাচনে তিনটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোট ১৪ জন, সাধারণ সদস্য পদে ১০৪ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৩০ জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে শামিল হয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দলীয় প্রার্থী ছাড়াও আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে মির্জাপুর ও পিরুজালীতে দুই জন বিদ্রোহী হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন দুলাল (নৌকা), বিএনপি প্রার্থীর ফজলুল হক মুসুল্লীর (ধানের শীষ) মধ্যে জোর লড়াই হবে। এ ইউনিয়নের যুবলীগের আহ্বায়ক খোরশেদ আলম (মোটরসাইকেল) আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির (এ) রফিকুল ইসলাম (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহ আলম (আনারস) ও রাকিবুল ইসলাম (ঘোড়া) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে লড়ছেন।

পিরুজালী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে শামিল হয়েছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের মো. জালাল উদ্দিন (নৌকা) ও বিএনপির মাসুদুল কবীর মোনায়েম (ধানের শীষ)। এছাড়া আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে বিদ্রোহী হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ সরকার মঞ্জু (আনারস)। এ তিন প্রার্থী মধ্যেই লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি।

ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের চেয়াম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগের বর্তমান চেয়ারম্যান হাজী সালাউদ্দিন সরকার (নৌকা), বিএনপির আলহাজ্ব আবু বকর সিদ্দিক (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির (এ) আবুল হোসেন (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. গোলাপ মিয়া (রজনীগন্ধা) ও শাহ মোঃ ওমর ফারুক (আনারস)।

মূলত এ ইউনিয়নে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকের মধ্যে জোর লড়াই হবে। গত নির্বাচনে সালাউদ্দিন সরকার বিএনপির সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবার তিনি সম্প্রতি আওয়ামী লীগে যোগদান করে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ফলে বিএনপির একক প্রার্থী হিসেবে আবু বকর সিদ্দিক অনেকটা সুবিধাজনক অবস্থায় আছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নকে ভেঙে তিনটি ইউনিয়নে বিভক্ত করা হয়। ওই বছরের ১৩ মে নবগঠিত ভাওয়াল গড় ও পিরুজালী ইউনিয়নে প্রথমবারের মতো নির্বাচন হয়েছিল। এবার দলীয় প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আমিনুল ইসলাম/এফএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :