পিরোজপুরে মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার ৫ আসামি গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৪:০৬ পিএম, ২১ মে ২০১৮
ছবি-ফাইল

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা থেকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার পাঁচ আসামিকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- উপজেলার নদমূলা-শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের হেতালিয়া গ্রামের মৃত খবির উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে মো. ফজলুল হক হাওলাদার (৭৭), মৃত আবুল হাসেমের ছেলে আব্দুল মন্নান (৭২), মৃত আফসার আলী হাওলাদারের ছেলে আজাহার আলী (আজু মুন্সী) (৯০), মৃত নজর আলী হাওলাদারের ছেলে মো. আশ্রাফ আলী হাওলাদার (৮০) ও চরখালী গ্রামের মৃত মহব্বত আলীর ছেলে মহারাজ।

সোমবার ভোরে আসামিদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর ভান্ডারিয়া উপজেলার ৫নং ধাওয়া ইউনিয়নের পূর্ব পশারিবুনিয়া গ্রামের মৃত নিরোধ চন্দ্র বালার ছেলে বিজয় কৃষ্ণ বালা বাদী হয়ে তার পাশের গ্রাম হেতালিয়ার মৃত খবির উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে মো. আমীর হোসেন হাওলাদার, মো. ফজলুল হক হাওলাদার, মৃত শামছুল হক হাওলাদারের ছেলে মো. নূরুল আমীন হাওলাদার ও মৃত আবুল হাসেম হাওলাদারের ছেলে আব্দুল মন্নানের বিরুদ্ধে আর্ন্তজাতিক যুদ্ধাপরাধ আইনে পিরোজপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক সত্যব্রত সিকদার মামলাটি আমলে নিয়ে আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবুনালে পাঠান। বাদি আসামিদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ চলার সময় তার বাবা নিরোধ চন্দ্র বালা, ভাই রণজিত বালা, তার নিকট আত্মীয় সুকুমার মিস্ত্রী, গঙ্গাচরণ, সমূল্য মিস্ত্রী ও অমূল্য মিস্ত্রীসহ ২৬ জনকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ তুলেছেন।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চত করে পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ বলেন, ডিবি পুলিশ আসামিদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে সোমবার ভোর রাতে গ্রেফতার করেছে।

জেলা ডিবি পুলিশের ওসি মো. মিজানুল হক জানিয়েছেন, অসুস্থতার কারণে মামলার ২নং আসামি মো. ফজলুল হককে (৭৭) পুলিশ প্রহরায় অ্যাম্বুলেন্সে করে আদালতে নেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, সোমবার পাঁচ আসামিকে পিরোজপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত অপর দুই অসামি রূপালী ব্যাংক থেকে অবসর প্রাপ্ত কর্মচারি মো. আমির হোসেন হাওলাদার ও কৃষি ব্যাংকে কর্মরত মো. নূরুল আমীন পলাতক রয়েছেন।

হাসান মামুন/আরএ/জেআইএম