ধর্ষণ করল বোনের ছেলে, গর্ভপাত করালেন খালা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বোনের ছেলের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা এক স্কুলছাত্রীর গর্ভপাত ঘটালেন খালা। বরিশালের মুলাদী উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের উত্তর পাতারচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষক সোলায়মান রাঢ়ি (২৩) উত্তর পাতারচর গ্রামের আ. ছালাম রাঢ়ির ছেলে। ধর্ষণে সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় সোলায়মান রাঢ়ি ও তার খালা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একই এলাকার কিশোরী এবং চরপদ্মা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করে আসছে সোলায়মান রাঢ়ি। ধর্ষণে ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়ে যায়। সোলায়মানকে বাঁচাতে তার প্রভাবশালী বাবা এবং স্থানীয় একটি মহল ছাত্রীর বাবাকে ঘটনাটি কাউকে না জানানোর জন্য চাপ দেয়। সেই সঙ্গে গত ২০ সেপ্টেম্বর রাতে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে সোলায়মানের খালা নাজমা বেগম স্কুলছাত্রীর গর্ভপাত ঘটায়। গর্ভপাত ঘটানোর পর স্কুলছাত্রী সুস্থ ও নিরাপদে আছে বলে জানালেও কোথায় আছে তা জানায়নি নাজমা বেগম।

এ ব্যাপারে সোলায়মানের বাবা আ. ছালাম রাঢ়ি বলেন, আমার ছেলের ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছি। এ বিষয়ে স্থানীয়রা যে সিদ্ধান্ত দেবেন তা আমি মেনে নেব।

এ বিষয়ে নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর প্রতিবন্ধী বাবা বলেন, আমার মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে। পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে আমার মেয়েকে তারা অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। কোথায় আছে আমার মেয়ে তা আমাকে জানানো হয়নি। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

এদিকে, স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এবং নিখোঁজের বিষয়টি নিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এখন পর্যন্ত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধারে কোনো পদক্ষেপ কিংবা কোনো মামলা করা হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মুলাদী থানা পুলিশের ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা আমার জানা নেই। কেউ এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাইফ আমীন/এএম/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :