কিশোরীদের দেহ ব্যবসায় বাধ্য করতেন ছাত্রলীগ নেতা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নরসিংদী
প্রকাশিত: ০৭:০২ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৮
গ্রেফতার ছাত্রলীগ নেতা কাউছার হামিদসহ তিনজন

নরসিংদীর পলাশে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কিশোরীদের দিয়ে দেহ ব্যবসা করানোর অভিযোগে এক ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে ভুক্তভোগী এক কিশোরী থানায় অভিযোগ দিলে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- ঘোড়াশাল পৌর ছাত্রলীগের উপ-ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কাউছার হামিদ, রোকেয়া বেগম ও তার স্বামী সাব্বির হোসেন। এ ঘটনায় পুলিশ আটকদের পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতাররা দীর্ঘদিন ধরে ঘোড়াশাল পৌর এলাকায় বিভিন্ন অসহায় কিশোরীদের কাজের কথা বলে তাদের বিভিন্ন কায়দায় ব্ল্যাকমেইল করে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করে আসছে। তাদের কথামতো দেহ ব্যবসায় জড়িত না হলে তারা বিভিন্ন সময় কিশোরীদের মারধর ও অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে নানাভাবে হয়রানি করতো। এরই ধারবাহিকতায় সম্প্রতি এক কিশোরীকে চাকরি দেয়ার কথা বলে ঘরে বন্দি করে দেহ ব্যবসা করার কথা বলেন ছাত্রলীগ নেতা কাউছার ও তার সহযোগীরা। দেহ ব্যবসায় রাজি না হলে তারা ওই কিশোরীকে মারধর করেন। পরে তার চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আসলে তারা পালিয়ে যান। এ ঘটনায় ওই কিশোরী থানায় মামলা দিলে পুলিশ গ্রেফতার করে।

পলাশ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মকবুল হোসেন মোল্লা জানান, গ্রেফতার কাউছার বিভিন্ন সময় এলাকার অসহায় মেয়েদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে অসামাজিক কাজে জড়িত হতে বাধ্য করত। কাউছারের মোবাইল ফোনে একাধিক নারী-পুরুষের অসামাজিক কাজের ছবি এবং ভিডিও পাওয়া গেছে।

সঞ্জিত সাহা/আরএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :