তদবিরে ব্যস্ত আ.লীগ, ঝাঁপিয়ে পড়ার অপেক্ষায় বিএনপি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর
প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ০২ নভেম্বর ২০১৮

লক্ষ্মীপুর জেলার ৪টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ঢাকায় অবস্থান করছেন। গত এক সপ্তাহ থেকে প্রায় সব প্রার্থীই নিজ নিজ দল থেকে মনোনয়ন নিশ্চিত করতে উচ্চ পর্যায়ের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে জোর তদবির ও লবিং করছেন। অধিকাংশ প্রার্থীই পূজার সময় এলাকায় ছিলেন।

এর আগে কয়েক মাস ধরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এলাকায় গণসংযোগের পাশাপাশি সরকারের উন্নয়নের প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা শেখ হাসিনার জন্য নৌকায় ভোট চান। আর বিএনপি ও জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা সম্প্রতি নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন। যদিও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে নির্বাচন কেন্দ্রীক আতঙ্ক বাড়ছে।

এদিকে শুক্রবার (২ নভেম্বর) দুপুরে ৩ নভেম্বর জেল হত্যা দিবসের কর্মসূচিতে অংশ নিতে বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল এলাকায় আসেন। তিনি লক্ষ্মীপুর ৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য।

অন্যদিকে লক্ষ্মীপুর ১ (রামগঞ্জ) আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন খান ঢাকায় অবস্থান করছেন। তার পক্ষ থেকে উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নে গত বুধবার ৫ হাজার পরিবারকে বিনামূল্যে চাল-ডাল দেয়া হয়। দলীয় নেতাকর্মীদের দিয়ে তিনি প্রত্যেক ইউনিয়ন ও পৌরসভায় এ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

এ আসনে গত কয়েকদিন ধরে জেলা আওয়ামী লীগের প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোজাম্মেল হক মিলনের পক্ষে নেতাকর্মীরা তৃণমূল পর্যায়ে সরকারের উন্নয়ন, সাফল্য ও অগ্রগতির লিফলেট বিতরণ করছেন। তিনিও গণসংযোগ করে জনগণকে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনের বর্তমান এমপি ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোহাম্মদ নোমান এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের তদারকি করছেন এবং প্রশাসনিকসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিচ্ছেন।

Lakshmipur

লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য মো. আবদুল্লাহ আল মামুন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক উপ-কমিটির সহসম্পাদক আবদুজ্জাহের সাজু মনোনয়ন প্রত্যাশায় এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন।

বিএনপির একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জে) আসনে নাজিম উদ্দিন আহমেদ, লক্ষ্মীপুর -২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনে আবুল খায়ের ভূঁইয়া, লক্ষ্মীপুর -৩ (সদর) আসনে শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি ও কমলনগর) আসনে এ বি এম আশরাফ উদ্দিন নিজান দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নির্বাচনী যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন।

জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দিন সাবু বলেন, আমাদের মাঠ গোছানো আছে। দলের হাই কমান্ড নির্বাচন নিয়ে যে সিদ্ধান্ত দেয়, আমাদের নেতাকর্মীরা তা বাস্তবায়নে ঝাঁপিয়ে পড়বে।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুকের সঙ্গে কথা হয়। তিনিও লক্ষ্মীপুর ৩ (সদর) আসনের প্রার্থী। তিনি বলেন, এখন থেকে নয়, গত দুই বছর ধরে আমি প্রতিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ডে-ওয়ার্ডে গিয়েছি। জনগণের সঙ্গে মতবিনিময়, উঠান বৈঠক, সমাবেশ করেছি। শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়নের বার্তা ঘরে-ঘরে পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছি। দল আমার ত্যাগ-শ্রমের মূল্যায়ন করবে।

কাজল কায়েস/এমএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :