বাবরের ছেলেসহ বিএনপির ৪ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে মামলা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নেত্রকোনা
প্রকাশিত: ০৮:১৮ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের ছেলে লাবীবকে (২৬) প্রধান আসামি করে চার শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নেত্রকোনার মদন থানায় পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে।

শনিবার রাতে মদন থানার এসআই মমতাজ উদ্দিন, যুবলীগ নেতা ফয়সাল আহমেদ ও নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে পৃথক এ তিনটি মামলা দায়ের করেন।

এবারে নির্বাচনে নেত্রকোনা-৪ (মদন- মোহনগঞ্জ- খালিয়াজুরী) আসনে বিএনপির প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করছেন লুৎফুজ্জামান বাবরের স্ত্রী তাহমিনা জামান।

মদন থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রমিজুল হক জানান, শনিবার রাতে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ গণসংযোগের সময় বৈশ্যবাড়ি সড়কে মুখোমুখি হলে সহিংসতা দেখা দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। এ সময় পুলিশ ৬১ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ১ রাউন্ড টিয়ারসেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় চার শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা চার শতাধিক লোককে আসামি করে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের পক্ষে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে

এসব মামলাকে সাজানো উল্লেখ করে উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরুল আলম বলেন, শনিবার কাইটাইল থেকে আমাদের প্রার্থী তাহমিনা জামানকে নিয়ে গণসংযোগ শেষে রাতে বাড়ি ফেরার পথে বৈশ্যবাড়ি সড়কে পৌঁছালে পুলিশ আমাদের গাড়ির গতিরোধ করে হামলা চালায় এবং গুলিবর্ষণ ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এতে নেতাকর্মীরা দিগ্বিদিক ছুটে চলে যায়। তাহমিনা জামান আত্মরক্ষায় এক বাড়িতে আশ্রয় নেন। দুই ঘণ্টা পর উপজেলা প্রশাসন প্রার্থীকে তার নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে মদন সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান শেখ মানিক, উপজেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আমান উল্লাহ সায়েম, বিএনপি নেতা রিয়াদ তালুকদার, সজিব ও হোসাইন খান শান্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কামাল হোসাইন/আরএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :