ছাড়া পেল সেই গরুটি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁও
প্রকাশিত: ০৬:৪৪ পিএম, ০৬ জানুয়ারি ২০১৯

অবশেষে ঠাকুরগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের ভেতরে ঘাস ও ফসলাদি নষ্টের অভিযোগে আটককৃত গরুটিকে ৬০০ টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

রোববার নিশ্চিন্তপুর খোয়াড় থেকে ৬০০ টাকা দিয়ে গরুটিকে ছাড়িয়ে নিয়েছেন গরুর মালিক মরিয়ম। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর বিজিবির অভিযোগে আটককৃত গরুটিকে খোয়াড়ে দেন সদর থানা পুলিশের ওসি আশিকুর রহমান।

ওসি আশিকুর রহমান বলেন, বিজিবি কর্তৃপক্ষ ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে গরুটির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিল। পরে বিজিবি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে গরুটিকে নিশিচন্তপুর খোয়াড়ে দেয়া হয়।

রোববার বিকেলে সদর থানার পুলিশ গরুটিকে খোয়াড়ে দিলে মরিময় ৬০০ টাকা ইজারাদারকে দিয়ে গরুটি ফেরত নেন। গত দুইদিন গরুটিকে ফেরত না পেয়ে মরিয়ম বেগম থানায় ও স্থানীয় নেতাদের কাছে ধরনা দিয়েও কোনো লাভ হয়নি।

মরিয়ম বেগম বলেন, একটি পশুর যদি জ্ঞান থাকতো তাহলে কি আর অন্যখানে গিয়ে ঘাস ও ফসল নষ্ট করত। আমি বার বার অনুরোধ করার পর বিজিবি আমার কথা শুনলেও ইজারাদার মাসুদের কারণে ফেরত দেয়নি গরুটি।

তারা আমার কাছে ক্ষতিপূরণের জন্য মোটা অংকের টাকা চেয়েছিল। আমি এত টাকা দিতে না পারার কথা জানিয়ে বিজিবির এক সদস্যের পা পর্যন্ত ধরেছি; কিন্তুু অবশেষে গরুটিকে থানায় দেয় তারা। রোববার বিকেলে পুলিশ গরুটি খোয়াড়ে দিলে ৬০০ টাকা দিয়ে ফেরত নিয়েছি। তিনদিন পর গরুটি ফেরত পাওয়ায় খুব ভালো লাগছে।

নিশ্চিন্তপুর খোয়াড়ের ইজারাদার নাজিম উদ্দিন বলেন, ৬০০ টাকা পরিশোধ করে খোয়াড় থেকে মরিয়ম বেগম তার গরুটিকে নিয়ে গেছেন।

রবিউল এহ্সান রিপন/এএম/পিআর