গৃহবধূর গলায় ফাঁস, সতিন আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নওগাঁ
প্রকাশিত: ০৮:৫০ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

নওগাঁর মান্দায় নাজমা খাতুন (৩২) নামে এক গৃহবধূর গলায় ফাঁস দেয়া মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তার সতিন আদরীকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার মৈনম ইউনিয়নের দুর্গাপুর চেয়ারম্যানের মোড় এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত নাজমা খাতুন মৈনম ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনের বড় স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আনোয়ার হোসেন দুই স্ত্রী নাজমা খাতুন ও আদরীকে নিয়ে বাড়িতে বসবাস করতেন। ঘটনার দিন সকাল থেকে তিনি বাড়িতে ছিলেন না। নাজমা খাতুনের তিন মেয়ের মধ্যে ছোট দুই মেয়ে বাড়ির বাইরে খেলাধুলা করছিল। বড় মেয়ে আখি আরবি পড়তে গিয়েছিল। পড়া শেষ করে বেলা ১১টার দিকে বাড়িতে এসে দেখে তার সৎমা চিৎকার করছে এবং মায়ের গলায় ফাঁস লাগানো। পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করছে স্থানীয়রা। খবর পেয়ে বিকেল ৪টার দিকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহতের বড় ভাই আব্দুল ওয়াহাব বলেন, আমার বোনের তিন মেয়ে। কোনো ছেলেসন্তান না থাকায় প্রায়ই নির্যাতন করা হতো। পরে বোনের অনুমতি না নিয়েই আবার বিয়ে করে আনোয়ার। বোনকে স্বামী ও সতিন মিলে মেরে ফেলে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে।

মান্দা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে নাজমা খাতুনের সতিন আদরীকে আটক করা হয়েছে। পারিবারিক দ্বন্দ্বে এ ঘটনা ঘটতে পারে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

আব্বাস আলী/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :