মাছের ঘেরে স্বামীর লাশ, স্ত্রী ও পরকীয়া প্রেমিক আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৪:৫২ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯

সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার চিনেডাঙ্গা কেওড়াতলা এলাকার একটি মাছের ঘের থেকে গলাকাটা অবস্থায় দিনমজুর আলী হোসেনের (২৬) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে স্থানীয়দের দেয়া খবরের পর মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ হত্যার ঘটনায় নিহতের স্ত্রী আসমা খাতুন ও স্ত্রীর প্রেমিক জাকির হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত আলী হোসেন সখিপুর গ্রামের মৃত. আহম্মদ আলীর ছেলে। আটক স্ত্রী আসমা খাতুন (২২) দেবহাটা উপজেলার গাজিরহাট ও প্রেমিক জাকির হোসেন পারুলিয়া এলাকার বাসিন্দা।

নিহতের চাচাতো ভাই সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আকবর আলী জাগো নিউজকে বলেন, সাত বছর আগে আলী হোসেনের সঙ্গে আসমা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের চার বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আলী হোসেন পেশায় দিনমজুর। তার সঙ্গে কারও কোনো শত্রুতা নেই।

আকবর আলী আরও বলেন, আমার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী আসমা খাতুন বিভিন্ন ছেলের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলত। এটা নিয়ে পরিবারের মধ্যে অশান্তি ছিল। এ নিয়ে সালিসি বৈঠকও হয়েছে। একসময় ব্র্যাকের এক মাঠকর্মীর সঙ্গে আসমার কথাবার্তা হতো। এটা নিয়েও পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হয়। এরপর পারুলিয়া এলাকার জাকির হোসেন নামে আরেক ছেলের সঙ্গে আসমার সম্পর্ক হয়। ফলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সম্পর্ক খারাপ হয়। আসমার পরকীয়া হতে পারে এ হত্যার মূল কারণ।

এ বিষয়ে দেবহাটা থানা পুলিশের ওসি বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, কি কারণে আলী হোসেনকে হত্যা করা হয়েছে সেটি এখনও নিশ্চিত নয়। স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে এ হত্যাকাণ্ড হতে পারে ধারণা করে জিজ্ঞাসাবাদোর জন্য স্ত্রী আসমা খাতুন ও পরকীয়া প্রেমিক জাকির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। নিহতের মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আকরামুল ইসলাম/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :