সুনামগঞ্জে ‘প্রাণ লিচি’ জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা শুরু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সুনামগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৩:৪৫ পিএম, ১২ এপ্রিল ২০১৯

‘উন্নত ভাবনা, সুন্দর আগামী বিতার্কিক আমরা, হবো অগ্রগামী’ এই স্লোগান নিয়ে সুনামগঞ্জে দুই দিনব্যাপী ‘প্রাণ লিচি’ জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। শুক্রবার সকালে সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ে বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশন ও সুনামগঞ্জ ডিবেটিং সোসাইটির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় সুনামগঞ্জ জেলা উদীচীর সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশনের সভাপতি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শুকরানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল আলম রাসেল, মহিউদ্দিন মধু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির সাবেক সহ-সভাপতি জিহাদ আল মেহেদী, সুনামগঞ্জ ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি মো. সেজু আহমেদ, সহ-সভাপতি মাসুদ আহমেদ অপু, সাধারণ সম্পাদক সোহানুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই আয়োজনে সারা বাংলাদেশ থেকে মোট ৩২টি বিতার্কিক দল অংশগ্রহণ করেছে। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি দল এবং বিদ্যালয় ও কলেজের ১৪টি দল রয়েছে। প্রথম দিনে গ্রুপ পর্বে রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে এবং আগামীকাল শনিবার সেমিফাইনাল ও ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

sunamgonj-pran

এ ব্যাপারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির সদস্য সাইয়ান সাদিক বলেন, বিতর্ক বিষয়টি ঢাকা কেন্দ্রিক বা বিভাগীয় শহর কেন্দ্রিক হয়ে যাচ্ছে। সুনামগঞ্জের মতো প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ যে ভালো করতে পারে, ভালো একটি স্থানে যেতে পারে সেটাই প্রমাণ করার মাধ্যম এই প্রতিযোগিতা। তাছাড়া ডিবেটিংয়ের মাধ্যমে অর্জিত জ্ঞান দৈনন্দিন জীবনে চলার পথে কাজে লাগানো যায়। সেই লক্ষ্যে এই অঞ্চলে বিতর্ক প্রতিযোগিতা।

সুনামগঞ্জ ডিবেটিং সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক সোহানুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, বিতর্ক দিয়ে পৃথিবীর সবকিছু অনুকূলে নিয়ে আসা যায়। এই ক্ষেত্রে বিতর্ক শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই প্রয়োজন। বর্তমানে চাকরির ক্ষেত্রে ভাইভা বোর্ডে বিতর্ককে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে।

sunamgonj-pran

জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থী রাফি আহমেদ বলেন, ‘প্রাণ লিচি’ জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা অনেক কিছু শিখতে পারবো।

সুনামগঞ্জ ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি মো. সেজু আহমেদ বলেন, সুনামগঞ্জে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা হওয়ায় ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। এখানে দেশেরে বিভিন্ন বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা এসে বিতর্কে অংশগ্রহণ করছেন। তাছাড়া পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও অংশগ্রহণ করছেন। সব মিলিয়ে একটি মিলনমেলা সৃষ্টি হয়েছে।

মোসাইদ রাহাত/আরএআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :