ধনিতা ত্রিপুরাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ৩ বন্ধু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৭:৪৬ পিএম, ১৫ মে ২০১৯

খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়ার বড়পাড়া এলাকার ধনিতা ত্রিপুরাকে (১৭) গণধর্ষণের পর বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে তিন বন্ধু। হত্যাকাণ্ডের দুইদিন না পেরুতেই বুধবার বিকেলে খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া বেগমের আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে গ্রেফতার তিন যুবক।

খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাহাদাত হোসেন টিটো জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কমল ত্রিপুরা, রনেল ত্রিপুরা ও কিরণ ত্রিপুরাকে গ্রেফতার করা হয়। বুধবার তাদের আদালতে হাজির করা হলে তারা ধর্ষণের পর হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ততা স্বীকার করে আদালতে স্বাকীরোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

জবানবন্দিতে ওই তিনজন জানিয়েছে, ধনিতা ত্রিপুরাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার পর সে রাজি হয়নি। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা ঘটনার দিন সুযোগ বুঝে তার বাড়িতে গিয়ে একে একে ধনিতা ত্রিপুরাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর ধনিতা ত্রিপুরাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে তারা।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার গভীর রাতে খাগড়াছড়ির ভাইবোনছড়ার দুর্গম বড়পাড়া গ্রামে ধনিতা ত্রিপুরাকে গণধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। সে সদর উপজেলাধীন ভাইবোনছড়ার বড়পাড়া এলাকার নল মোহন ত্রিপুরার ছোট মেয়ে। স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে মঙ্গলবার বিকেলের পুলিশ নিহতের বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহত ধনিতা ত্রিপুরার মা সরলেখা ত্রিপুরা বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি সদর থানায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/আরএআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :