পুলিশের দরজা সবসময় খোলা, নির্ভয়ে আসবেন : এসপি হারুন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৩:৫০ পিএম, ০১ জুন ২০১৯

নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) হারুন অর রশিদ বলেছেন, চাষাঢ়ার মোড়ে প্রতিনিয়ত ছিনতাই হতো। আমরা প্রায় ৩০ জনের মতো ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছি। যারা চাঁদাবাজ ,যারা রাস্তায় দাঁড়িয়ে টাকা তুলতেন তাদেরকে গ্রেফতার করেছি। চাষাঢ়া থেকে সাইনবোর্ড যত্রযত্র ইউটার্ন ছিল। আমরা পুলিশের নিজস্ব উদ্যোগে ইউটার্নগুলো বন্ধ করেছি। আমরা সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে আছি।

শনিবার দুপুরে চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জেলা পুলিশের উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, সাধারণ মানুষের কষ্ট দূর করার জন্য যেখানে যে উদ্যোগ গ্রহণ করার দরকার সে উদ্যোগ আমরা গ্রহণ করছি। চাষাঢ়া থেকে পঞ্চবটি পর্যন্ত যানজট নিরসনে কাজ করছি। পুলিশের স্বল্পতার কারণে নিজ উদ্যোগে বিভিন্ন থানার মোড়ে মোড়ে কমিউনিটি পুলিশ কাজ করছে। আমরা চাই নারায়ণগঞ্জ সুন্দর শহর হবে। যানজটমুক্ত শহর হবে, রাস্তার মধ্যে কোনো ফুটপাথ থাকবে না। ধন্যবাদ জানাই হকার ভাইদেরকে যারা তাদের মালামাল নিয়ে রাস্তায় বসেন না। ধন্যবাদ জানাই সাধারণ মানুষদেরকে যারা আমাদেরকে সহযোগিতা করছেন। আমাদের দরজা সবসময় খোলা থাকে। আমরা মনে করি নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি রয়েছে। আমরা বলবো পুলিশের কাছে নির্ভয়ে আসবেন। আপনাদের সকল সেবা নিশ্চিতের জন্য কাজ করেছি।

এসপি হারুন অর রশিদ বলেন, আমরা সবসময় সাধারণ মানুষের পক্ষে থাকবো। প্রতিদিন পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাধারণ মানুষের ভিড় জমে থাকে। সবকিছু মিলিয়েই আমরা কাজ করছি। কাঁচপুর, হাইওয়ে সড়ক ও ভুলতায় প্রচুর পুলিশ দিনরাত কাজ করছে। কোথাও কোনো যানজট নেই। চাষাঢ়া থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত যানজট নিরসনে পুলিশ কাজ করছে।

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মোহাম্মদ নুরে আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা, নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম, ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি শাহীন পারভেজ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শাহাদাত হোসেন/আরএআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]