পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে সংঘর্ষে চীনা নাগরিক নিহত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ০১:২২ পিএম, ১৯ জুন ২০১৯

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নির্মাণাধীন পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কাজ করার সময় শ্রমিক নিহতের ঘটনায় সংঘর্ষে আহত চাং ইয়াং ফাং নামে এক চীনা নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার ভোররাতে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বাংলাদেশ চায়না পাওয়ার কোম্পানির সহকারী প্রকৌশলী মো. পিঞ্জর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সূত্রে জানা যায়, কলাপাড়ায় নির্মাণাধীন পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্রে মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে কাজ করা অবস্থায় ব্রয়লার থেকে পড়ে সাবিন্দ্র দাস (৩৩) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। এ ঘটনার জের ধরে সেখানকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে শুরু করে। বাঙালি শ্রমিকদের সঙ্গে সেখানে কর্মরত চীনা নাগরিকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। এ সময় তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভেতরে ক্যান্টিন, অফিস, প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও ওয়েল্ডার ভাঙচুর করা হয়। এতে দুই পক্ষের প্রায় ২০ জন শ্রমিক আহত হন।

এদের মধ্যে ছয় চীনা নাগরিককে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ভোররাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান চীনা নাগরিক চাং ইয়াং ফাং। অন্যরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এস এম জাকির হোসেন জানান, নিহত চীনা শ্রমিকের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন ছিল না। তবে ব্রেন হ্যামারিংয়ের কারণে ভোররাতে তার মৃত্যু হয়।

পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রেজওয়ান হক খান জানান, শ্রমিকের মৃত্যু নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির কারণে দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

মহিব্বুল্লাহ্ চৌধুরী/আরএআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :