পাহাড়ে বঙ্গবন্ধু ও ৭ বীরশ্রেষ্ঠের ম্যুরাল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৯:২৫ এএম, ০৮ জুলাই ২০১৯

স্বাধীনতা সোপানের পর এবার পার্বত্য খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ও মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎস্বর্গ করা ৭ বীরশ্রেষ্ঠকে নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে 'ফ্রিডম স্কয়ার'।

পাহাড়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণ ও মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎস্বর্গ করা ৭ বীরশ্রেষ্ঠকে নিয়ে এটাই প্রথম ম্যুরাল।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত কমপ্লেক্সের সম্মুখভাগে বৃত্তাকার বেইজমেন্টে ৭ ফুট উচ্চতা ও ৯ ফুট প্রশস্ত দুটি অর্ধ বৃত্তাকার ম্যুরালের মাঝখানে রয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রেপ্লিকা।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বিভীষণ কান্তি দাশের উদ্যোগে নির্মিত 'ফ্রিডম স্কয়ার' পাহাড়ি জনপদে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়াবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

সবার মাঝে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে ম্যুরালটি নির্মাণ করা হয়েছে উল্লেখ করে বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, এর মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানকে স্মরণ ও তাদের ত্যাগের কথা নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করেছি মাত্র।

তিনি বলেন, প্রতিদিনই সর্বস্তরের মানুষ সরকারের সেবা নিতে উপজেলা পরিষদে আসেন। তারা যেন 'ফ্রিডম স্কয়ার' দেখে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হন সে চিন্তা থেকেই আমার এ প্রচেস্টা।

মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা বলেন, 'ফ্রিডম স্কয়ার' মাটিরাঙ্গাকে নতুনভাবে পরিচিত করবে। এ ম্যুরাল স্থাপনের মাধ্যমে মাটিরাঙ্গাবাসীর হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন ইউএনও বিভীষণ কান্তি দাশ।

শ্যামল ও সুষেন আচার্য্য নামে দুই সহোদরের গড়া এ ম্যুরালটি রোববার দুপুরের দিকে উন্মোচন করেন ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

এমন উদ্যোগের প্রশংসা করে তিনি বলেন, সরকারি কর্মকর্তারা দায়িত্বের প্রয়োজনে আসেন, আবার চলেও যান। তবে তারা কেউ কেউ এমন কিছু কাজ করে যান যার মাধ্যমে মানুষ যুগ যুগ তাদেরকে স্মরণ করে। ফ্রিডম স্কয়ারের মাধ্যমে এখানকার মানুষ বিভীষণ কান্তি দাশকে মনে রাখবে।

এর আগে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত কমপ্লেক্স ভবন ও অডিটোরিয়াম উদ্বোধন করেন কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এমএমজেড/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]