সেলফি তুলতে গিয়ে ইউএনওর মোবাইল পানিতে, উদ্ধারে ডুবুরি দল

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জামালপুর
প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ২৭ জুলাই ২০১৯

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আমিনুল ইসলাম স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে বন্যার পানি দেখতে যান। এ সময় বন্যাকবলিত এলাকার একটি সেতুর ওপর দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার সময় ইউএনওর হাত থেকে মোবাইল পানিতে পড়ে যায়।

মোবাইল পানিতে পড়ে যাওয়ায় ফায়ার সার্ভিসকে কল করেন ইউএনও। খবর পেয়ে মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ছয় সদস্যের একটি দল। কয়েক ঘণ্টা চেষ্টার পর উদ্ধার হয় মোবাইলটি। এই দৃশ্য দেখতে ভিড় জমায় শত শত মানুষ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার চর লোটাবর সেতুতে এ ঘটনা ঘটে।

জামালপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. নুরুদ্দিন অলী বলেন, মাদারগঞ্জের ইউএনও মো. আমিনুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলার সিঁধুলী ইউনিয়নের চর লোটাবর সেতু পার হওয়ার সময় সেতুর ওপর গাড়ি থামান। পরে সেতুর ওপর স্ত্রীর সঙ্গে সেলফি তোলার সময় হাত থেকে মোবাইলটি পানিতে পড়ে যায়। হঠাৎ এমন ঘটনায় হতভম্ব হয়ে পড়েন ইউএনও ও তার স্ত্রী।

গভীর পানিতে মোবাইল পড়ে যাওয়ায় আশা ছেড়ে দিয়ে বাসায় ফিরে যান তারা। তবে ওই দিন রাতেই জামালপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তাদের কল দিয়ে পানিতে পড়ে যাওয়া মোবাইলটি উদ্ধার করে দিতে বলেন ইউএনও।

ইউএনওর কথামতো পরদিন শুক্রবার সকালে মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সুমন মিয়ার নেতৃত্বে দুইজন ডুবুরিসহ ছয় সদস্যের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। প্রায় কয়েক ঘণ্টা পানিতে অনুসন্ধান চালিয়ে মোবাইলটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন ডুবুরিরা। পরে মোবাইলটি ইউএনওর হাতে তুলে দেন তারা।

মাদারগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের অফিসার সুমন মিয়া বলেন, ঘটনাস্থলে পানির বেশ গভীরতা এবং স্রোত ছিল। মোবাইলটি পানি নিরোধক হওয়ায় নষ্ট হয়নি। মোবাইলটি পেয়ে ইউএনও এবং তার স্ত্রী অনেক খুশি হয়েছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাদারগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, স্মার্টফোন স্যামসাং গ্যালাক্সি এস-১০ মডেলের মোবাইলটি আমার খুব প্রিয়। মোবাইলটির দাম প্রায় এক লাখ টাকা। মোবাইলটি পানিতে পড়ে যাওয়ায় উদ্ধারের আশাই ছেড়ে দিয়েছিলাম আমরা। কিন্তু পরে মোবাইলটি উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদের সহায়তা নেয়া হয়। তারা মোবাইলটি উদ্ধার করতে পেরেছেন। অনেক কষ্ট করেছেন তারা। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

আসমাউল আসিফ/এএম/এমকেএইচ/এমএস