মা-বাবাকে পিটিয়ে মাদরাসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা
প্রকাশিত: ০৬:০১ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৯
গণধর্ষণে অভিযুক্ত লাল্টু

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসিক এলাকায় মা-বাবাকে পিটিয়ে আহত করে এক মাদরাসাছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বাড়ির পাশের একটি আমবাগানে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় রোববার দুপুরে লাল্টু ওরফে মন্টু (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। লাল্টু উপজেলার একই গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে।

আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) শেখ মাহবুবুর রহমান জানান, গতকাল শনিবার গভীর রাতে উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসিক এলাকার লাল্টু ওরফে মন্টু, মধু ওরফে শরিফুল এবং রাজু প্রতিবেশী ওই মাদরাসাছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে তার বাবা-মাকে পিটিয়ে আহত করে। পরে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী আমবাগানে গণধর্ষণ করে ফেলে রেখে চলে যায় তারা। এরপর এলাকাবাসী মেয়েটিকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় রোববার সকালে ওই ছাত্রীর বাবা আলমডাঙ্গা থানায় লাল্টু ওরফে মন্টুসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে দুপুর ১টার দিকে মামলার প্রধান আসামি লাল্টু ওরফে মন্টুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুন্সী আসাদুজ্জামান জানান, ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা চলছে। প্রধান আসামি লাল্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সালাউদ্দিন কাজল/আরএআর/জেআইএম