প্রেমিকার বাবা-ভাইয়ের পিটুনিতে প্রেমিকের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট
প্রকাশিত: ০৯:০৪ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৯

লালমনিরহাটে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে প্রেমিকার বাবা ও ভাইয়ের বেধরক পিটুনিতে আহত মাসুদ রানা সোহেল (৩০) মারা গেছেন। রোববার বিকেলে লালমনিরহাট পৌরসভার টিএনটি ভবন এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহত মাসুদ রানা সোহেল লালমনিরহাট পৌরসভার টিএনটি ভবন এলাকার আইয়ুব আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়, সোহেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক জড়িয়ে পড়ে লালমনিরহাট শহরের নর্থ বেঙ্গল মোড় এলাকার আতিয়ার রহমানের ছোট মেয়ে আশা মনি (১৭)। ছেলের চেয়ে মেয়ের বয়স অনেক কম হওয়ায় মেয়ের বাবা ও ভাই বিষয়টি মেনে নেননি। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে যান সোহেল। ওই সময় মেয়েটির পরিবারের লোকজন সোহেলকে আটক করে রাতভর বেধরক মারপিট করে।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে পাঠায়। গত শনিবার (১৭ আগস্ট) রাতে হঠাৎ সোহেল বেশি অসুস্থ হলে তাকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হস্তান্তর করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার ভোরে সোহেল মারা যান। এরপর তার মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায় পরিবার। বিষয়টি জানাজানি হলে সোহেলের পরিবার লালমনিরহাট সদর থানায় মামলা করেন। পরে বিকেল ৩টায় নিজ বাড়ি থেকে সোহেলের মরদেহ উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

টিএনটি পাড়ার রফিকুল ইসলাম বলেন, মেয়ের বাবা ও ভাইয়ের মারধর ও অপমান সইতে না পেরে মদ পান করে এলাকায় মাতাল অবস্থায় সোহেলকে ঘুরতে দেখা গেছে।

সোহেলের বাবা আইয়ুব আলী বলেন, আমার ছেলেকে ডেকে নিয়ে তারা মারধর করে হত্যা করেছে। মারপিটের কারণে সোহেল অসুস্থ হয়ে মারা গেছে।

লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম বলেন, মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রবিউল হাসান/আরএআর/পিআর