প্রেমিকার বাড়িতে আটকা পড়ে ৯৯৯-এ কল, অতঃপর...

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ১০:০৯ এএম, ২৩ আগস্ট ২০১৯

৯৯৯-এ ফোন করে বাঁচার আকুতি জানিয়ে নিজেই ফেঁসে গেছেন রিয়াদ নামে এক তরুণ। বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার গাংগাইল ইউনিয়নের পংকরহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ওই তরুণ এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে জেলা সদরে নিয়ে যান। ছাত্রীর বাবা খবর পেয়ে তরুণকে খুঁজে বের করে নগরীর একটি বাসা থেকে মেয়েকে উদ্ধার করে দু’জনকে বাড়িতে আটকে রাখেন। সম্মান বাঁচাতে মেয়েকে বিয়ে করার জন্য ওই তরুণকে চাপ দেন বাবা। ওই চাপ থেকে মুক্তি পেতেই তরুণ ৯৯৯-এ ফোন করে বাঁচার আকুতি জানান।

এদিকে ওই ছাত্রী জানায়, উলুহাটি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রিয়াদের সঙ্গে মুঠোফোনের রং নম্বরে পরিচয় ঘটে। পরিচয়ের পর থেকে ভালোলাগা তৈরি হয়। বুধবার রিয়াদ তাকে ময়মনসিংহে পাঠায়। সেখানেই তাদের বিয়ে হবে বলে রিয়াদ তাকে জানায়। কিন্তু ময়মনসিংহে যাওয়ার পর সে বুঝতে পারে যে রিয়াদের ফাঁদে পড়েছে। পরে তার বাবা তাকে উদ্ধারসহ রিয়াদকে সঙ্গে নিয়ে বাড়িতে নিয়ে যান। কিন্তু রিয়াদ কৌশলে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে তার অবস্থান জানিয়ে উদ্ধারের আকুতি জানান।

এ ঘটনায় নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুর রহিম সুজন মেয়ের বাড়িতে গিয়ে রিয়াদকে উদ্ধার করেন। এ সময় ছাত্রীর পরিবার ছাত্রীর মানসম্মান ক্ষুণ্নের কথা জানালে দুজনকেই থানায় পাঠান ইউএনও।

থানার ওসি মনসুর আহম্মাদ জানান, ইউএনওর হস্তক্ষেপে দুজনকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। এ বিষয়ে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে একটি অপহরণ মামলা করেছেন।

এফএ/এমএস