জাল সনদে চাকরি, মহিলা প্রভাষক গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৩:০৬ পিএম, ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
ফাইল ছবি

জাল সনদের মাধ্যমে শিক্ষকতা করার অভিযোগে নোয়াখালীর হাতিয়া ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক শাহিদা আক্তার রুবি গ্রেফতার হয়েছেন। রোববার দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদুক) তাকে গ্রেফতার করে।

অভিযুক্ত শাহিদা আক্তার হাতিয়া উপজেলার চর কৈলাশ গ্রামের কে এম ওবায়েদুল্লাহর স্ত্রী।

জানা গেছে, শাহিদা আক্তার রুবি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যায়ন কর্তৃপক্ষের অধীনে ২০১০ সনের পরীক্ষার (রোল-৪০৬০২৭৯৪, রেজি : ১০০০০১২৬২ পরীক্ষা- ষষ্ঠ-২০১০) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতির প্রভাষক পদে একটি জাল সনদ বানিয়ে হাতিয়া ডিগ্রি কলেজে প্রভাষক (ইসলামের ইতিহাস) হিসেবে যোগ দেন। পরবর্তীতে এমপিওভুক্ত হয়ে (ইনডেক্স নং ৩০৮৪৪২১ মূলে) বেতন-ভাতা বাবদ মোট ৫,৩৮,৯৭৫/- টাকা (১ নভেম্বর’২০১২ থেকে ৩১ মার্চ’২০১৬ পর্যন্ত) উত্তোলন/গ্রহণ করেন।

পরবর্তীতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতরের শিক্ষা পরিদর্শক টুটুল কুমার নাগ এবং অডিট অফিসার গোলাম মুর্তজা ২০১৫ সালের ৩ ডিসেম্বর কলেজ নিরীক্ষাকালে তার সনদের সত্যতা নিশ্চিত না হওয়ায় এটিকে জাল হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

এ বিষয়ে নোয়াখালী দুদকের সহকারী পরিচালক সুবেল আহমেদ জানান, শাহিদা আক্তার রুবি হাতিয়া ডিগ্রি কলেজে দীর্ঘদিন ধরে জাল সনদের মাধ্যমে শিক্ষকতা করে আসছিলেন। পরে অনুসন্ধানের মাধ্যমে আমরা তার জাল সনদের বিষয়ে নিশ্চিত হই। তিনি সনদ জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে সরকারি মোট ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৯৭৫ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। যা অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে।

মিজানুর রহমান/এমএমজেড/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]