কুমার নদের পাড়ে ৫০ পরিবার ভাঙনের কবলে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯

মাদারীপুর সদর উপজেলার কুমার নদের ভাঙনের কবলে পড়েছে জেলেপাড়া ও দাসপাড়া নামে দুই সম্প্রদায়ের ৫০ পরিবার। গত শনিবার সকালে ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতিম সাহা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার পৌর পেয়ারপুর কুমার নদের পাড়ে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করছেন জেলে পাড়ার ৫০ পরিবার। ৫/৬ দিন আগে এলাকার কয়েকটি বাড়ি-ঘরে ফাটল দেখা দেয়। ফাটলগুলো শুক্রবার বিকেল থেকে বড় আকার ধারণ করেছে। পাড়ের কয়েকটি বাড়ি-ঘর দেবে গেছে। যে কোনো সময় নদীতে ধসে যেতে পারে পুরো জেলে পাড়াটি।

Madaripur-Picture11

ফাটল দেখা দেয়ায় এলাকার মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। শনিবার সকালে ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতিম সাহা ও মাদারীপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি মো. হাফিজুর রহমান যাচ্চু খান।

এলাকার মাধবী মালো বলেন, হঠাৎ করে আমাদের বাড়ির কয়েকটি জায়গায় ফাটল দেখা দিয়েছে। কখন যে বাড়ি নদীতে ভেঙে যায় বুঝতে পারছি না। সরকার যেন দ্রুত ভাঙন বন্ধের ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

Madaripur-Picture11

পান্টু দাস বলেন, আমার বসত ঘরের মাঝে ফাটল দেখা দিয়েছে। নদীতে ঘর ভেঙে গেলে ছেলে-মেয়ে নিয়ে কোথায় উঠবো জানিনা। ভাঙন বন্ধ করতে তাড়াতাড়ি বালুর বস্তা ফেলা প্রয়োজন। বালুর বস্তা না ফেললে পুরো গ্রামটি নদীতে ভেঙ্গে যাবে।

মাদারীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতিম সাহা বলেন, কুমার নদীর পাড়ের কয়েকটি বাড়ি-ঘরে ফাটল দেখা দিয়েছে। আমি নদীর পাড়ের ওই সব বাড়ি-ঘর এবং ফাটল দেখে এসেছি। মন্ত্রণালয়ে নদীর ভাঙন প্রতিরোধের জন্য আবেদন পাঠাবো। মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পেলে ভাঙন রোধে কাজ করতে পারবো।

এ কে এম নাসিরুল হক/এমএএস/এমএস