নতুন বছরে দৃশ্যমান হবে পদ্মা সেতুর ৩ কিলোমিটার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মুন্সীগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৩:৩৩ পিএম, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯
ফাইল ছবি

সব জটিলতা কাটিয়ে ২০১৯ সালে মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুতে বসেছে একে একে ১৯টি স্প্যান। চলতি মাসেই বসেছে দুটি স্প্যান। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১৯টি স্প্যানে দৃশ্যমান হয়েছে পদ্মা সেতুর দুই হাজার ৮৫০ মিটার। ৩১ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) বসানো হচ্ছে পদ্মা সেতুর ২০তম স্প্যান। এই স্প্যান বসলে বিজয়ের মাসে সেতুর মোট তিনটি স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হবে। নতুন বছরে দৃশ্যমান হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর তিন কিলোমিটার।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী হুমায়ূন কবির জানান, ৩১ ডিসেম্বর সেতুর ২০তম স্প্যান বসানোর শিডিউল রয়েছে। এরপর থেকে প্রতি মাসে তিনটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। এ শিডিউল মেনে স্প্যান বসাতে পারলে আগামী বছরের জুলাই নাগাদ ৪১টি স্প্যান বসানো শেষ হবে বলে আশা করা যায়।

জানা গেছে, ২০তম স্প্যান হিসেবে ‘৩-এফ’ সেতুর মাওয়া প্রান্তে ১৮ ও ১৯ নম্বর পিলারের ওপর বসছে। আবহাওয়া ও কারিগরি কোনো সমস্যা দেখা না দিলে ৩১ তারিখেই স্প্যান বসবে। ১৯তম স্প্যান বসানোর ১৩ দিনের মাথায় বসানো হচ্ছে ২০তম স্প্যানটি।

পদ্মা সেতুর প্রতিটি স্প্যান ১৫০ মিটার দীর্ঘ ও ৩ হাজার ১৪০ টন ওজন। ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার তিয়ান-ই ভাসমান ক্রেনে প্রতিটি স্প্যান মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কুমারভোগ কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে বহন করে নিয়ে পিলারে বসানো হয়।

উল্লেখ্য, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়নার মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে।

পদ্মা সেতুতে মোট ৪২টি পিলারের মধ্যে বর্তমানে কাজ সম্পন্ন হয়েছে ৩৫টির। সেতুতে দুই হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে ৪১০টি স্ল্যাব বসানো হয়েছে। ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে ১২৫টি স্ল্যাব বসানো শেষ হয়েছে। পদ্মা সেতুর মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৩টি স্প্যান। এর মধ্যে ১৯টি স্প্যান স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে।

ভবতোষ চৌধুরী নুপুর/আরএআর/এমএস