মেলেনি চিকিৎসা, হাসপাতাল চত্বরে ভ্যানের ওপর সন্তান প্রসব

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ১১:৪০ এএম, ০৫ মে ২০২০

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসা না পেয়ে হাসপাতাল চত্বরে ভ্যানের ওপর সন্তান প্রসব করেছেন শিমুলী রানী দাস নামে এক গৃহবধূ। প্রসব বেদনা উঠলে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন স্বজনরা। তবে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা না পাওয়ায় হাসপাতাল চত্বরে ভ্যানের ওপরেই ছেলে সন্তান প্রসব করেন ওই গৃহবধূ।

গত শুক্রবার (১ মে) এ ঘটনা ঘটে। সোমবার (৪ মে) এ ঘটনার কয়েকটি ছবি সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তোলপাড় শুরু হয় স্বাস্থ্য বিভাগে। তিন সদস্যের একটি তদন্ত টিম গঠন করেন সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত। আগামী সাতদিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

গৃহবধূ শিমুলী দাস সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের ছনকা গ্রামের বিধান দাসের স্ত্রী। বর্তমানে তিনি সন্তানসহ সাতক্ষীরা সদরের মাছখোলা ঝঁটিতলা এলাকায় বাবার বাড়িতে রয়েছেন।

শিমুলী দাসের মা অষ্টমী রানী দাস বলেন, প্রসব বেদনা উঠলে মেয়েকে নিয়ে সদর হাসপাতালে যাই। কিন্তু জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা কোনো চিকিৎসা দেননি। কিছুক্ষণ পরই মেয়ের প্রচণ্ড প্রসব বেদনা ওঠে। সঙ্গে একজন ধাত্রী থাকায় হাসপাতাল চত্বরে ভ্যানের ওপর ছেলে সন্তানের জন্ম দেয় শিমুলী। পরে আমরা বাড়িতে ফিরে আসি।

satkhira-hospital02.jpg

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ঘটনাটি জানার পর জরুরি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইনচার্জের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি ঘটনাটি অস্বীকার করেছেন।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত জানান, ঘটনাটি জানার পর তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাতদিনের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আকরামুল ইসলাম/আরএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]