রিকশা চালিয়ে লেখাপড়া করা ছেলেটির লাশ পাওয়া গেল পুকুরে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৬:২৬ পিএম, ০২ জুন ২০২০
ফাইল ছবি

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ভুরুলিয়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে এক কলেজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত কলেজছাত্র আহসান হাবিব (২০) ভুরুলিয়া এলাকার প্রতিবন্ধী আমিরুল ইসলামের ছেলে। সে রিকশা চালিয়ে খুলনা বঙ্গবন্ধু কলেজের একাদশ শ্রেণিতে লেখাপড়া করত।

নিহতের মা নুরজাহান বেগম জানান, করোনার কারণে মার্চ মাসে খুলনা থেকে বাড়িতে আসে হাবিব। প্রতিবন্ধী বাবা কোনো উপার্জন করতে পারে না। তাই হাবিব খুলনায় রিকশা চালিয়ে লেখাপড়া করছিল। পরিবারের দেখাশুনাও করত। পুকুরে কিভাবে গেল জানি না।

নিহতের চাচা শোয়েব আক্তার জানান, সোমবার সন্ধ্যার পর তারা সাধুর হাটখোলা এলাকায় গল্প করছিলেন। রাত ৯টার দিকে ভাত খাওয়ার কথা বলে আহসান হাবিব বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়। কিন্তু রাতে বাড়িতে ফেরেনি। খোঁজাখুঁজি করেও কোনো সন্ধান মেলেনি। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে আতিয়ার সরদারের পুকুরে ভাসমান অবস্থায় মরদেহ পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় শ্যামনগর থানার ওসি (তদন্ত) ইয়াছিন আলম চৌধুরী বলেন, খবর পেয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। মৃতদেহের সঙ্গে থাকা একটি মুঠোফোন ও একটি ওড়নাসহ বেশকিছু আলামত জব্দ করা হয়েছে। ঘটনার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ মাঠে নেমেছে। এছাড়া এটি আত্মহত্যা না অন্যকিছু ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানা যাবে।

আকরামুল ইসলাম/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]