বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন ননদ-ভাবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ এএম, ০৪ জুন ২০২০

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় আলমসাধুর সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে ননদ ও ভাবি নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও একজন। বুধবার (৩ জুন) রাত রাত ১০টার দিকে উপজেলার চুয়াডাঙ্গা-দামুড়হুদা সড়কের কোষাঘাটা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- দামুড়হুদা উপজেলার হাতিভাঙ্গা গ্রামের জিনারুল আলীর স্ত্রী তানিয়া খাতুন (২৫) ও তার ননদ রোমানা খাতুন (২২)। নিহত রোমানা অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দামুড়হুদা উপজেলার হাতিভাঙ্গা গ্রামের মনিরুজ্জামান তার ছোট বোন রুমানা খাতুন ও বড় ভাবি তানিয়া খাতুনকে নিয়ে দুপুরে চুয়াডাঙ্গায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। রাতে তিনজন মিলে এক মোটরসাইকেলে চুয়াডাঙ্গা থেকে দামুড়হুদায় গ্রামের বাড়ি ফিরছিলেন।দামুড়হুদার কোষাঘাটা এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ধানবোঝাই একটি আলমসাধুর সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এতে মোটরসাইকেলের তিন আরোহী গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে তানিয়া খাতুনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রুমানা খাতুনের মৃত্যু হয়। রুমানা খাতুন ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। আহত মনিরুজ্জামান চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল খালেক জানান, নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

আরএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]