চাঁদা না দেয়ায় চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে দোকান লুট

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নীলফামারী
প্রকাশিত: ১০:০৬ এএম, ২০ জুলাই ২০২০

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একটি কাপড়ের দোকানে লুট করা হয়েছে। রোববার (১৯ জুলাই) বিকেলের দিকে উপজেলার সুটিবাড়ি বাজারে অবস্থিত প্রধান সড়কের সামনে তৌফিক ক্লথ স্টোরে এই লুটের ঘটনা ঘটে। এ সময় দোকানের ২০ লাখ টাকার মালামাল ও নগদ ২ লাখ টাকা লুট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই ব্যবসায়ী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গয়াবাড়ি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হকের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসীরা এই লুটপাট চালায়। ইউপি চেয়ারম্যান ওই লুটের ঘটনায় গ্রাম পুলিশকে ব্যবহার করেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে এমন লুটের ঘটনা এলাকাবাসী ও ওই বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ইউপি চেয়ারম্যান এলাকায় তার হুকুমের রাজত্ব সৃষ্টি করেছেন। তার এক বিশাল সন্ত্রাসী দল রয়েছে। তারা ইচ্ছামতো যা খুশি করছে।

তৌফিক ক্লথ স্টোরের মালিক শাহিন ইসলাম জানান, সুঠিবাড়ি বাজারের আমার ওই কাপড় দোকানটি ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত। ৭ দিন আগে ইউপি চেয়ারম্যান আমাকে দোকানটি ছেড়ে দিতে বলেন। দোকান কেন ছেড়ে দেব জানতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে দোকান লুটেরও হুমকি দেন।

বিষয়টি সুঠিবাড়ি বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা স্থানীয় সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তবিবুল ইসলাম ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায়কে অবগত করেন। এ অবস্থায় রোববার বিকেলে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে কাপড়ের দোকানটি লুটপাট করা হয়। দোকানের ২০ লাখ টাকার মালামাল ও নগদ ২ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যান তারা।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হকের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি। এমনকি তার মোবাইলে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ জানান, ঘটনাটি শুনেছি। মামলা পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় বলেন, ঘটনাটি জানার পর আমি সেখানকার গ্রাম পুলিশের সঙ্গে কথা বলি। তারা আমাকে ঘটনার সত্যতা অবগত করেন। বিষয়টি আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তদন্ত করব।

তিনি আরও বলেন, আজ সোমবার সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। এ ব্যাপারে কাপড় ব্যবসায়ী শাহিন ইসলাম বাদী হয়ে ডিমলা থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

জাহেদুল ইসলাম/এফএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]