রোগীর মৃত্যুতে স্বজনদের হাতে চিকিৎসক-নার্স লাঞ্ছিত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফেনী
প্রকাশিত: ০১:০০ এএম, ০৪ আগস্ট ২০২০

ফেনী ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে রোগীর স্বজনের হাতে চিকিৎসক ও নার্স লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

রোববার (০২ আগস্ট) বিকেলে মোস্তফা কামাল (৭৫) নামে এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে হাসপাতালের সিসিইউতে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্সদের মারধর করেন মৃতের স্বজনরা। সিসিটিভি ফুটেজে ছয়জন পুরুষকে হামলায় অংশ নিতে দেখা যায় এবং এক নারীকে হামলা উসকে দিতে দেখা যায়।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, হাসপাতালের সিনিয়র চিকিৎসক মতিউর রহমানকে কিল-ঘুষি দেয়া হয়। একই সময়ে নার্স রহিমা আক্তার, আয়া মাধবী রাণীসহ কর্মরত তিন নারীকে লাঞ্ছিত করেন মৃতের স্বজনরা।

ফেনী ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মীর হোসেন মীরু বলেন, রোববার সিসিইউতে এক রোগীর মৃত্যু হয়। এতে মৃতের স্বজনরা চিকিৎসক ও নার্সদের মারধর ছাড়াও হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। হাসপাতালের একটি কার্ডিয়াক মনিটর, গ্লাস ডোর, আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন তারা। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, মৃত মোস্তফা কামাল ওয়াপদার অবসরপ্রাপ্ত চাকরিজীবী ছিলেন। শহরের শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার সড়কে তার বাসা হলেও ফেনী সদর উপজেলার মোটবী বড়বাড়ির বাসিন্দা ছিলেন তিনি।

এ ঘটনায় সোমবার হাসপাতাল পরিদর্শনে আসেন সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন দিগন্ত ও ফেনী জেলা বিএমএ'র সাধারণ সম্পাদক ডা. বিমল চন্দ্রশীল। এ বিষয়ে জানতে রোগীর অভিভাবক সাইফুল ইসলামের মোবাইল ফোনে বারবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা যায়নি।

ফেনী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত চলছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

রাশেদুল হাসান/এএম/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]