চাঁদপুর শহররক্ষা বাঁধে ফের ভাঙন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ১১:৪১ এএম, ১৩ আগস্ট ২০২০

চাঁদপুর শহররক্ষা বাঁধে ফের ভাঙন দেখা দিয়েছে। বুধবার দিবাগত রাতে শহরের পুরানবাজার হরিসভা এলাকায় হঠাৎ মুহূর্তেই কিছু এলাকা নদীতে তলিয়ে গেছে। ফাটল দেখা দেয় ২৫ মিটার এলাকায়। এতে মেঘনার ভাঙনের মুখে রয়েছে পুরো এলাকা। ভাঙন আতংকে স্থানীয় বাসিন্দারা মালামাল সরিয়ে নেয়া শুরু করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার রাত ১০টায় পুরানবাজার হরিসভা এলাকায় ভয়াবহ ফাটল দেখা যায়। এ সময় শহররক্ষা বাঁধের বেশকিছু ব্লক নদীতে বিলীন হয়ে যায়। বিরাট এলাকাজুড়ে ফাঁটল দেখা দেয়ায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. বাবুল আখতার জানান, ভাঙনরোধে জরুরি ভিত্তিতে জিও ব্যাগ ফেলা শুরু হয়েছে। মেঘনা নদীর পানি প্রবল বেগে প্রবাহিত হওয়ার পাশাপাশি সৃষ্ট ঘূর্ণিপাকে হরিসভাসহ পুরানবাজার ব্যবসায়িক এলাকাটি ঝুঁকিতে রয়েছে।

jagonews24

স্থানীয়রা জানান, শহররক্ষা বাঁধের হরিসভা এলাকায় কয়েক মাস আগেও ভাঙন দেখা দেয়। ওই সময় ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে বালিভর্তি বস্তা ফেলা হয়।

পুরানবাজার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. মাসুদ বলেন, আমরা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার লোকজনকে নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু করেছি।

ভাঙনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. বাবুল আক্তার, এনএসআই চাঁদপুরের উপ-পরিচালক আজিজুল হক, পৌর পরিষদের প্যানেল মেয়র সিদ্দিক রহমান ঢালী, চাঁদপুর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ নাসিম উদ্দিন, পুরান বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. মাসুদ, মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হারুনুর রশীদ, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি তমাল কুমার ঘোষ, নদী ভাঙন প্রতিরোধ সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ব্যাংকার মুজিবুর রহমান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মমতাজ উদ্দিন মন্টু গাজী প্রমূখ।

এফএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]