কেন্দ্রীয় নেতাদের পাশে বসা নিয়ে বিএনপির দু’দলের সংঘর্ষে আহত ৮

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ১০:১১ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

পাবনার ঈশ্বরদীতে উপনির্বাচন উপলক্ষে ঢাকা থেকে আসা কেন্দ্রীয় নেতাদের পাশে বসাকে কেন্দ্র করে জেলা বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৮ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। এদর মধ্যে ৪ জন ছুরিকাহত হন। সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে ঈশ্বরদীর সাহাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেনকে অভ্যর্থনা জানানো নিয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে।

বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ছুরিকাহতরা হলেন- জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হিমেল রানা (৪৫), জেলা ছাত্রদলের সাংগাঠনিক সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন (২৪), সহ সাংগাঠনিক সম্পাদক সাব্বির হোসেন (২২) এবং জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক আজমল হোসেন রানা (২৭)। তাদেরকে উদ্ধার করে সন্ধ্যার আগে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় সাদ্দাম হোসেন, সাব্বির হোসেন ও আজমল হোসেন রানাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় আহত আরও ৪ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ধানের শীষের প্রচারণায় অংশ নিতে কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, ডাকসুর সাবেক জিএস ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ডাকসুর সাবেক জিএস নাজিম উদ্দিন আলম, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা মোস্তাাফিজুর রহমান বাবুলসহ বিএনপির কেন্দ্রীয় ও জেলার নেতৃবৃন্দ সোমবার ঈশ্বরদীতে আসেন।

jagonews24

ঈশ্বরদীতে পথসভা ও গণসংযোগ শেষে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ হাবিবুর রহমান হাবিবের গ্রামের বাড়ি সাহাপুরের বাসভবনে যান। এ সময় নেতাদের সঙ্গেই ছিলেন পাবনা জেলা বিএনপি, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতৃবৃন্দ। বিকেল ৪টার দিকে খাবার দেয়ার সময় কেন্দ্রীয় নেতাদের পাশে বা সাথে বসা নিয়ে পাবনা থেকে আসা জেলা বিএনপির দু’টি গ্রুপ প্রথমে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। পরে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। এ ঘটনায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসীর উদ্দীন এ ঘটনা সম্পর্কে সোমবার সন্ধ্যায় বলেন, শহরে পুলিশ মোতায়েন ও বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। এ ঘটনায় কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি তবে শহরের পরিস্থিতি এখন শান্ত।

উল্লেখ্য, পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনের সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুজনিত কারণে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর পাবনা-৪ আসেন উপ- নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]