বৃষ্টির পানিতে ডুবে গেছে নীলফামারীর বিভিন্ন এলাকা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নীলফামারী
প্রকাশিত: ০২:৫২ এএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

উজানের ঢল কমে যাওয়ায় তিস্তা নদীর পানি ডালিয়া তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ১৩ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে টানা ভারী বর্ষণে নীলফামারীর বিভিন্ন এলাকা পানিতে ডুবে গেছে। পাশাপাশি বৃষ্টির পানিতে উপচে পড়েছে ছোট নদীগুলো।

গত চার দিনের বৃষ্টির চেয়ে শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে চলছে ভারী বর্ষণ। বিকেল সাড়ে ৩টায় জেলা সদরের বুড়িখোড়া নদীর খনন পরিদর্শন, নদীর ধারে বৃক্ষরোপণের জন্য নীলফামারী সফর ছিল পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপির। তিনি নীলফামারীতে এসেও এমন বৈরী ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে এ কর্মসূচি বাতিল করে তিস্তা ব্যারাজের ‌রেস্ট হাউসে অবস্থান নেন।

শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা থেকে শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত নীলফামারীর তিস্তা ব্যারেজ ডালিয়ায় বৃষ্টিপাত হয় ৯৬ মিলিমিটার, ডিমলা উপজেলা শহরে ৭০ মিলিমিটার, নীলফামারী জেলা শহরে ৯০ মিলিমিটার ও সৈয়দপুর শহরে ৮২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় আবহাওয়া অফিস।

jagonews24

বৃষ্টির পানিতে জেলা সদর, ডোমার, ডিমলা, জলঢাকা, কিশোরীগঞ্জ ও সৈয়দপুর উপজেলার নিম্নাঞ্চল ডুবে গেছে। বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতার কারণে অনেক এলাকায় যান চলাচল কার্যত বন্ধ হয়ে পড়েছে। পানিতে ভাসছে হাটবাজার দোকানপাটগুলো। বিভিন্ন বাসাবাড়ি ও বিপণিকেন্দ্রে পানি ঢুকে পড়েছে। এদিকে টানা বৃষ্টির কারণে অনেক রাস্তাঘাট ধসে পড়েছে।

নীলফামারী বড় বাজারের কাচামাল ব্যবসায়ী আরিফ হোসেন বলেন, গত ৪ দিনের বৃষ্টির কারণে মানুষজন বাজার করতে আসতে পারছে না। এতে আমাদের সবজিগুলো পানিতে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

আলু ব্যবসায়ী লুৎফর রহমান বলেন, টানা বৃষ্টিতে বাজারে ভেতরে পানি প্রবেশ করেছে। এতে সংরক্ষণে রাখা আলু, পেঁয়াজ, রসুন ভিজে গিয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

জেলা শহরের মানিকের মোড়ের রিকশাচালক আমিনুর বলেন, বৃষ্টির কারণে মানুষজন ঘর থেকে বের হচ্ছে কম। এ অবস্থায় রিকশার যাত্রী পাওয়া যাচ্ছে না। শহরের কিছু কিছু রাস্তায় পানি জমে থাকায় রিকশা নিয়ে চলাচল করা যাচ্ছে না।

জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, টানা বৃষ্টিতে জেলার প্রায় সব এলাকায় জলাবদ্ধতার খবর আমরা পেয়েছি। সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ জনপ্রতিনিধিদের ওইসব এলাকা পরিদর্শন করে দ্রুত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

জাহেদুল ইসলাম/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]