জামালপুরে হত্যা মামলায় দুই ভাইয়ের ফাঁসি ও ৭ জনের যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জামালপুর
প্রকাশিত: ০৭:৫৬ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
প্রতীকী ছবি

জামালপুরে রিকশাচালক রাসেল হত্যা মামলায় দুই ভাইয়ের ফাঁসি ও ৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন জামালপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

র্দীঘ প্রায় ১১ বছর আইনি লড়াই শেষে রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ বিচারক মো. জুলফিকার আলী খাঁনের আদালতে হত্যার ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় আসামিদের উপস্থিতিতে তিনি এ রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নির্মল কান্তি ভদ্র জানান, ২০০৭ সালে ২৬ ডিসেম্বর জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে ইসলামপুর উপজেলার পূর্ব শাশারিয়াবাড়ি গ্রামের রাসেলের সঙ্গে প্রতিবেশী ভুট্টু ও তার বন্ধুদের বাক-বিতণ্ডার ঘটনা ঘটে।

এর জেরে পরদিন রাতে ভুট্টুর সহযোগীরা রাসেলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরের দিন সকালে আখ ক্ষেত থেকে পুলিশের উপস্থিতিতে রাসেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় রাসেলের মা আছিয়া খাতুন বাদী হয়ে ভুট্টুসহ ১৩ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ২৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে ভুট্টু (৩০) ও তার ভাই খালেককে (৪৫) মৃত্যুদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়াও ছামিউল (৩০), জহিজল (৩০), রশিদ (৪৫), মো. কাশি (৫০), ফুলু মিয়া (৩০), বিদ্যুৎ (২৫) ও বাবুলকে (২৫) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন আদালত।

এ মামলায় অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর ৪ আসামি হুচ্চু, ফেক্কু, ইয়া মন্ডল ও সাহেব আলীকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট নির্মল কান্তি ভদ্র এবং আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ ও মো. আনোয়ারুল করিম শাহজাহান।

আসামিপক্ষের স্বজনদের দাবি এ মামলায় তারা ন্যায় বিচার পায়নি। পরর্বতীতে তারা ন্যায় বিচারের স্বার্থে উচ্চ আদালতে আপিল করবে।

এমএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]