ছাত্রলীগের ‘আনন্দ মিছিল’ কেন্দ্র করে ১৪৪ ধারা জারি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নড়াইল
প্রকাশিত: ১১:৪৫ এএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০
ফাইল ছবি

নড়াইলের কালিয়ায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ একই সময়ে কালিয়া পৌরসভার কলেজ রোড এবং পার্শ্ববতী মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স এলাকায় পাল্টাপাল্টি আনন্দ মিছিল ও র‌্যালির আয়োজন করেছে আজ। দু’গ্রুপের এমন ঘোষণায় কালিয়ার পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এ আদেশ বলবত থাকবে বলে জানিয়েছেন নড়াইলের কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল হুদা।

তিনি বলেন, কালিয়া পৌরসভা এলাকায় শান্তিশৃংখলা বজায় রাখার স্বার্থে মঙ্গলবার সকাল থেকে সভা-সমাবেশ ও আগ্নেয়াস্ত্র বহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গত ২২ অক্টোবর এফএম সোহাগকে সভাপতি ও রাইসুল ইসলাম পান্নুকে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া উপজেলা এবং এমএম তানভিরুল ইসলামকে সভাপতি এবং প্রশান্ত কুমার দাশকে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া পৌর শাখা ছাত্রলীগে এক বছর মেয়াদী কমিটি ঘোষণা করে জেলা ছাত্রলীগ।

২৩ অক্টোবর ঘোষিত কমিটিকে প্রত্যাখান করে তা বাতিলের বিক্ষোভ সমাবেশ করেন বিক্ষুদ্ধ ও পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। পরে মো. ইয়ামিন বিশ্বাসকে সভাপতি ও মহিবুল ইসলাম অনিককে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া উপজেলা শাখা এবং নিয়ামত হোসেন প্রাপ্তকে সভাপতি এবং রাইসুল ইসলাম হৃদয়কে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করেন বিক্ষুদ্ধ ও পদ বঞ্চিতরা।

উভয় গ্রুপের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার বিকেলে কালিয়া পৌর এলাকায় কমিটি ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাধারণ-সম্পাদককে ধন্যবাদ জানাতে আনন্দ মিছিল ও র‌্যালির ঘোষণা দেয়া হয়।

কালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. ইব্রাহিম শেখ জানান, ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র উপেক্ষা করে সম্পূর্ণ মনগড়াভাবে অযোগ্য ব্যক্তিদের দিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে জেলা ছাত্রলীগ। আমরা তৃণমূলের নেতাকর্মীরা এই অবৈধ কমিটি প্রত্যাখান করেছি।

ছাত্রলীগের মূল গঠনতন্ত্র মেনে কালিয়া উপজেলার ১০টি ইউনিট এবং ছাত্রলীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মো. ইয়ামিন বিশ্বাসকে সভাপতি ও মহিবুল ইসলাম অনিককে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া উপজেলা শাখা এবং নিয়ামত হোসেন প্রাপ্তকে সভাপতি এবং রাইসুল ইসলাম হৃদয়কে সাধারণ সম্পাদক করে কালিয়া পৌর ছাত্রলীগের কমিটি করেছেন।

তিনি বলেন, এই কমিটি ঘোষণা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে ধন্যবাদ জানাতে আজকে আনন্দ মিছিল ও র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে।

এদিকে জেলা ছাত্রলীগ ঘোষিত কালিয়া উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এফএম সোহাগ বলেন, গঠনতন্ত্র মোতাবেক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে কালিয়া উপজেলা ও কালিয়া পৌরকমিটি ঘোষণা করেছে জেলা ছাত্রলীগ। এর বাইরে কারো ছাত্রলীগের নামে কোনো কমিটি ঘোষণার এখতিয়ার নেই। যদি কেউ কোনো কমিটি ঘোষণা করেন তা সম্পূর্ণ অবৈধ।

তিনি জানান, দীর্ঘ দিন পর যোগ্য নেতৃবৃন্দকে দিয়ে কালিয়া উপজেলা ও কালিয়া পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে ধন্যবাদ জানাতে মঙ্গলবার আনন্দ মিছিল ও র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রকিবুল ইসলাম পলাশ বলেন, গঠনতন্ত্র মোতাবেক গত ৩ মার্চ কালিয়ায় ছাত্রলীগের কর্মীসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তখন করোনা মহামারি শুরু হলে কমিটি গঠনের কার্যক্রম স্থগিত থাকে। গত ৫ অক্টোবর পুরাতন কমিটি দুটি বিলুপ্ত করে ছাত্র নেতাদের কাছ থেকে জীবনবৃত্তান্ত গ্রহণ করা হয়।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক যোগ্য ছাত্র নেতাদের নিয়ে এক বছরের জন্য নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত কমিটিকে আগামী এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিতে বলা হয়েছে।

হাফিজুল নিলু/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]