দুই গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ৩০ অক্টোবর ২০২০

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার, গৃহহীন থাকবে না কোনো পরিবার। এ ঘোষনাকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি অর্থের পাশাপাশি প্রকল্পের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন সারা দেশের সচিববৃন্দ।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সকল সচিব নিজ উপজেলায় গৃহহীন ২টি পরিবারকে ঘর করে দেবেন। এরই ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার মোকনা ইউনিয়নের কোনড়া গ্রামের কৃতি সন্তান ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের নিজ অর্থায়নে ২টি পরিবারকে ঘর করে দেন।

শুক্রবার জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি ঘর নির্মাণের কাজ পরিদর্শন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নাগরপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর, পাকুটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান ছিদ্দিক, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক, খন্দকার হুমায়ুন কবীর, সমাজসেবক খন্দকার সাজ্জাদ হোসেন আপেল।

পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি বলেন, মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার, গৃহহীন থাকবে না কোনো পরিবার। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী নাগরপুর ও মির্জাপুরের দুই সচিব মহোদয় নিজস্ব অর্থায়নে ও নিজ এলাকায় ২টি গৃহহীন পরিবারকে ১টি করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন।

jagonews24

টাঙ্গাইল জেলায় প্রধানমন্ত্রী সরকারি অর্থে ৫৬৪টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিচ্ছেন। একই সঙ্গে বেসরকারিভাবে জেলা আওয়ামী লীগের সহায়তায় ৫০টি, স্থানীয় এমপি, ধনাঢ্য ব্যক্তি, জেলার নির্বাহী কর্মকর্তাবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতায় আমরা আরও ১৪৮টি ঘর করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়েছি। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে করটিয়ায় দোলেনা বেগম নামে এক গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি টাঙ্গাইল জেলায় গৃহহীনদের ঘর করে দেয়াটা একটি সামাজিক আন্দোলনে রূপান্তরিত হয়েছে।

আরিফ উর রহমান টগর/এমএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]