টাঙ্গাইলে গৃহবধূকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ৩১ অক্টোবর ২০২০

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় রোজিনা আক্তার (২১) নামের এক গৃহবধূকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) রাতে উপজেলার মিরকুটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোজিনা আক্তার নাগরপুর উপজেলার কোকাদাইর গ্রামের মৃত মজের আলীর মেয়ে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী মো. জয়নাল আবেদিন ওরফে বাবুকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে স্বামীর বাড়িতে আগুনে দগ্ধ হন রোজিনা আক্তার। পরে তাকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য নেয়া হয় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর শনিবার সকালে উন্নত চিকিৎসা জন্য ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হলে পথিমধ্যে মারা যান রোজিনা।

দুই বছরের কন্যা সন্তানের জননী ছিলেন রোজিনা আক্তার। মৃত্যুর পর তার মরদেহ নিয়ে আসা হয় বাবার বাড়িতে। রোজিনার মৃত্যুর খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন নাগরপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে দুপুরে স্বামী জয়নাল আবেদিন ওরফে বাবুকে আটক করে পুলিশ।

রোজিনা আক্তারের বড় বোন হুনুফা আক্তার বলেন, প্রায় চার আগে উপজেলার মিরকুটিয়া গ্রামের নশের আলীর ছেলে মো. জয়নাল আবেদিন ওরফে বাবুর সঙ্গে আমার বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য বারবার চাপ সৃষ্টি করতে থাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ও স্বামী। শুক্রবার রাতে পরিকল্পিতভাবে আমার বোনকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।

নাগরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলম চাঁদ বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী জয়নাল আবেদিন ওরফে বাবুকে থানায় আনা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রোজিনা আক্তারের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আরিফ উর রহমান টগর/এএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]